‘বোমা হামলা চালাতে শিশুদের ব্যবহার করছে বোকো হারাম’

নাইজেরিয়ার সরকার হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, নারী তাকফিরিরা বোমা হামলা চালাতে শিশুদের ব্যবহার করছে। বোমা হামলা চালানোর বিষয়টি যেন আগেভাগে ধরা না পড়ে সে জন্য ন্যাক্কারজনক ভাবে শিশুদের ব্যবহার করা হয় বলে সরকারি হুঁশিয়ারিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

নাইজেরিয়ার সরকারি কর্মকর্তারা বলেছেন যে অনেক দিন ধরেই সন্ত্রাসীগোষ্ঠীটি বোমা হামলায় নারীদের ব্যবহার করছে। কিন্তু এ ধরণের হামলায় শিশুদের ব্যবহার করাকে বিপদজনক প্রবণতার আলামত হিসেবে উল্লেখ করেন তারা।

অবশ্য ব্রিটিশ সরকারের পরিচালিত বিবিসি’তে সোমবার প্রকাশিত খবরে এ জাতীয় বোমা হামলাকে ‘আত্মঘাতী’ হিসেবে দাবি করা হয়েছে। কিন্তু অবোধ এবং নিরীহ শিশু বোমা হামলা চালাতে নিজে থেকে সম্পৃক্ত হয় নি বা এ নিয়ে কোনো মতামত দেয় নি। তাই এ জাতীয় হামলাকে ‘আত্মঘাতী’ বলার কোনো যুক্তিই থাকতে পারে না বলে স্বাভাবিক ভাবেই ধারণা করছেন শুভবুদ্ধির মানুষরা।

চলতি মাসের ১৩ তারিখে বিস্ফোরক গায়ে বাধা দুই নারী নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ফাঁকি দিয়ে মাদাগালি শহরে ঢুকে পড়ে। তাদের চালানো বোমা হামলায় নিজেরাসহ আরো চার ব্যক্তি নিহত হয়। হামলাকারী নারীদের কোলে শিশু রয়েছে বলে মনে হওয়ায় তারা নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ফাঁকি দিতে পেরেছিল।

এ হামলায় প্রধান সন্দেহভাজন সন্ত্রাসীগোষ্ঠী হলো বোকো হারাম। তাকফিরি সন্ত্রাসী এ গোষ্ঠী বোমা হামলায় নারী এবং কমবয়সী মেয়েদের ব্যবহার করছে। তাকফিরি সন্ত্রাসীগোষ্ঠী দায়েশের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেছে বোকো হারাম। গত কয়েক বছর ধরে মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকায় নির্বিচারে হত্যা ও ধ্বংসলীলা চালিয়ে যাচ্ছে দায়েশ।

You Might Also Like