মেয়ের পর মাও চলে গেলেন

হলিউডের কিংবদন্তি অভিনেত্রী ডেবি রেনল্ডস আর নেই। তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

এর আগের দিন তার মেয়ে অভিনেত্রী ক্যারি ফিশার মারা যান। এক দিনের ব্যবধানে তারকা অভিনেত্রী মা ও মেয়ের মৃত্যুতে হলিউডে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন রেনল্ডস। বুধবার সকালে তাকে লস অ্যাঞ্জেলেসের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়, সেখানে তার মৃত্যু হয়।

কিংবদন্তি রেনল্ডস ১৯৫২ সালে সিংইন ইন দি রেইন সিনেমায় দুর্দান্ত অভিনয় দিয়ে হলিউডে নাম করেন। এ সিনেমায় তার বিপরীতে ছিলেন জেন কেলি।

ক্যারি ফিশার স্টার ওয়ার্স সিরিজের প্রিন্সেস লেইয়া সিনেমায় অভিনয় করে সাড়া জাগান। ৬০ বছর বয়সে মঙ্গলবার তিনি শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

রেনল্ডসের ছেলে জানিয়েছেন, বুধবার অসুস্থ হয়ে পড়লে অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিডারস-সিনাই মেডিক্যাল সেন্টারে নেওয়া হয়। মায়ের মৃত্যুর ঘোষণায় রেনল্ডসের ছেলে টড ফিশার বলেন, ‘তিনি এখন ফিশারের সঙ্গে আছেন এবং আমাদের হৃদয় ভেঙে গেছে।’

টড ফিশার জানান, ক্যারি ফিশারের মৃত্যুতে ভেঙে পড়েন তাদের মা রেনল্ডস। হয়তো এ কারণেই তিনি হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হন।

মঙ্গলবার মেয়ের মৃত্যুর পর রেনল্ডস ফেসবুক স্ট্যাটাসে ক্যারি ফিশারের ভক্ত-সমর্থকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। ক্যারি ফিশারের পরের জীবনে শান্তি কামনা করে সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন।

১৯৫০ ও ১৯৬০-এর দশকে রেনল্ডস হলিউডের মিউজিক্যাল ও কমেডিয়ান সিনেমায় দারুণ সফল হন। ১৯৬৪ সালে আনসিঙ্কাবল মোলি ব্রাউন নামে মিউজিক্যাল সিনেমায় অভিয়নের জন্য একাডেমিক অ্যাওয়ার্ডে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জেতেন।

২০১৫ সালে রেনল্ডসকে আজীবন সম্মাননা দেয় স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড গাইডস। মেয়ে ক্যারি ফিশার তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

You Might Also Like