দুর্নীতির অভিযোগ: ভারতের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগ চাইল কংগ্রেস

দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরণ রিজিজু’র পদত্যাগ দাবি করেছে প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এ সংক্রান্ত একটি অডিও টেপ প্রকাশ করা হয় যাতে ৪৫০ কোটি টাকার দুর্নীতির মধ্যে কিরণ রিজিজু’র নামও রয়েছে।

কিরণ রিজিজু অবশ্য দুর্নীতির অভিযোগকে ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা’ বলে মন্তব্য করে বলেছেন, ‘যারা মিথ্যা অভিযোগ করছেন, অরুণাচল প্রদেশে গেলে তাদের জুতোপেটা করা হবে।’

কিরণ রিজিজুর বিরুদ্ধে অভিযোগ, অরুণাচল প্রদেশে একটি বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র প্রকল্পে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় সেই প্রকল্পটির সমস্ত বরাদ্দ বন্ধ করে দেয়া হয়। কিন্তু কিরণ রিজিজু প্রভাব খাটিয়ে সম্পর্কিত ঠিকাদার ভাইকে সেইসব বরাদ্দ পাইয়ে দিয়েছেন বলে অভিযোগ।

বুধবার কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ সংক্রান্ত দুর্নীতির যে তদন্ত চলছে তা শেষ না হওয়া পর্যন্ত কিরণ রিজিজুকে পদত্যাগ করতে হবে।

অরুণাচল প্রদেশে একটি বিদ্যুৎ প্রকল্পের জন্য দু’টি বাঁধ নির্মাণ করা হচ্ছে। ওই প্রকল্পের অন্যতম সাব-কন্ট্রাক্টর কিরণ রিজিজুর সম্পর্কিত ভাই বা আত্মীয় গোবোই রিজিজুসহ অন্যরা। এ ব্যাপারে বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ে বিপুল অঙ্কের বিল জমা দেন গোবোই রিজিজুরা। গুরুতর দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় সেই বিল বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয় আটকে দিয়েছিল। বিদ্যুৎ প্রকল্পটির নির্মাতা সংস্থা নিপকোর চিফ ভিজিল্যান্স কর্মকর্তা সতীশ বর্মা এর আগে এক রিপোর্টে উল্লেখ করেন ভুয়া বিল জমা দিয়ে কমপক্ষে ৪৫০ কোটি টাকা সরকারি কোষাগার থেকে লোপাট করার চেষ্টা হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কিরণ রিজিজু বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়কে চিঠি লিখে আটকে থাকা ওই বিলের অর্থ পরিশোধ করতে বলেন। কিরণ অবশ্য চিঠি লেখার কথা অস্বীকার না করলেও তিনি কোনো দুর্নীতি করেননি বলে দাবি করেছেন। তার দাবি, এ সংক্রান্ত যাবতীয় বরাদ্দ কংগ্রেস সরকারের আমলে মিটিয়ে দেয়া হয়। তিনি কেবল বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠিকে ফরওয়ার্ড করেছেন মাত্র। ভিত্তিহীন অভিযোগ করার জন্য কংগ্রেসের ক্ষমা চাওয়া উচিত বলেও কিরণ রিজিজু মন্তব্য করেছেন।

You Might Also Like