‘‘বাংলাদেশের সকল নাগরিকের উচিত নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানো’’

মিয়ানমারের নিপীড়িত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে প্রবেশের সুযোগ দেয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। আজ(মঙ্গলবার) জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই আহ্বান জানান।

‘বিদেশে প্রধানমন্ত্রীর বন্ধু নেই’মন্তব্য করে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, শেখ হাসিনার বিদেশে প্রভূ আছে কিন্তু বন্ধু নেই। তাই ফেলানীর লাশ ঝুললেও কিছু বলতে পারেন না তিনি। সীমান্তে বিজিবি গুলি না করার ঘোষণা দিলেও বিএসএফ কিন্তু গুলি চালানো বন্ধ করেনি। তারা গুলি করে আমাদের মানুষ মারছে, গরু-ছাগল মরছে। কিন্তু কোনো প্রতিবাদ নেই এই সরকারের।

ওদিকে, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের উদ্যোগে আজ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের নিপীড়ন বন্ধের দাবি জানানো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে সংগঠনের মহাসচিব আহমেদ আবদুল কাদের রেডিও তেহরানকে জানান, জীবন নিয়ে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেবার জন্য খেলাফত নেতৃবৃন্দ সরকারকে অনুরোধ করেছেন। একই সাথে আগামী শুক্রবার ২৫ নভেম্বর সারা দেশে বিক্ষোভ দিবস পালনেরও ঘোষণা দেয়া হয় এ মানববন্ধন থেকে।

রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনকে গণহত্যা অভিহিত করে এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হবার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন সিপিবির কেন্দ্রীয় নেতা রুহীন হোসেন প্রিন্স। তিনি রেডিও তেহরানকে বলেন জাতিসংঘের ঘোষণা আনুযায়ী বাংলাদেশকে উদ্যোগী হয়ে নিজেদের স্বার্থেই রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ভূমিকা পালন করতে হবে। না হলে, এ সমস্যাকে অন্য কেউ ব্যবহার করে বাংলাদেশের জন্য আরো গভীর সংকট তৈরি করতে পারে।

তাছাড়া, মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর সে দেশের সেনাবাহিনী নারকীয় হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোকে জোরালো ভূমিকা রাখার জন্য আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি।

মঙ্গলবার সুপ্রিমকোর্ট সমিতি মিলনায়তনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এই দাবি জানান সমিতির সভাপতি ও আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর যে নির্যাতন চালানো হচ্ছে তা বিশ্ব বিবেককে নাড়া দেয়ার মতো যথেষ্ট। কিন্তু জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ঐ ঘটনার ব্যপারে জোরালো কোনে ভূমিকা দেখছি না।

আইনজীবী সমিতির সভাপতি বলেন, দলমত নির্বিশেষে বাংলাদেশের সকল নাগরিককে মিয়ানমারের নির্যাতিত সংখ্যালঘু মুসলমানদের পাশে দাঁড়ানো উচিত।

সংবাদ সম্মেলনে নারকীয় হত্যাযজ্ঞের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি নৃশংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি।

সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার এম মাহবুদ্দিন খোকনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

You Might Also Like