নিউজিল্যান্ডে ৭.৮ মাত্রা ভূমিকম্প; সুনামির সতর্কতা

নিউজিল্যান্ডের মধ্যাঞ্চলে ৭.৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছে এবং কর্তৃপক্ষ বড় ধরনের সুনামির সতর্কবার্তা জারি করেছে। লোকজনকে উঁচু জায়গায় আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, সুনামির ফলে সমুদ্রে সর্বোচ্চ ৫ মিটার বা ১৬ ফুট উঁচু ঢেউ সৃষ্টি হতে পারে।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপে বলা হয়েছে, রোববার মধ্যরাতের পর এ ভূমিকম্প আঘাত হানে এবং ক্রাইস্টচার্চ শহরের ৯১ কিলোমিটার উত্তর ও উত্তর-পূর্বে সবচেয়ে বেশি অনূভূত হয়েছে। তবে অকল্যান্ড, নেলসন ও হ্যামিলটনেও ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জন কি’র বরাত দিয়ে প্রচারিত খবরে বলা হয়েছে- এ পর্যন্ত কায়কুরা এলাকায় দুজন মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। রাজধানী ওয়েলিংটনে জন কি সাংবাদিকদের বলেন, এ পর্যন্ত দু জনের বেশি লোক মারা যাওয়ার খবর নেই এবং এ সংখ্যা বাড়বে বলেও মনে হয় না। তবুও সব আশংকা মাথায় রেখে দুর্গত এলাকায় হেলিকপ্টার পাঠানো হচ্ছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত বিবরণ পাওয়া যায় নি। কায়কুরা হচ্ছে ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থলের কাছেই অবস্থিত।

উপকূলীয় শহর সাউথ আইল্যান্ড ও নর্থ আইল্যান্ডের পূর্ব উপকূলে সুনামির সাইরেন সক্রিয় করা হয়েছে। সমুদ্রোপকূলের লোকজনকে সরানোর জন্য জরুরি সংস্থার কর্মীরা বাড়ি বাড়ি কাজ করছে। এরইমধ্যে হাজার হাজার লোককে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক খবরে বলা হয়েছে, দু মিটার উচ্চতার ঢেউ সৃষ্টি হতে দেখা গেছে তবে তা আরো শক্তিশালী হবে। রাজধানী ওয়েলিংটনের লোকজন পুরো রাত কাটিয়েছেন রাস্তায়। যাবতীয় সেবা কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হতে পারে বলে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

২০১১ সালে নিউজিল্যান্ডে ৬.৩ মাত্রার ভূমিকম্পে ১৮৫ জন নিহত হয়েছিল।

You Might Also Like