ঠাকুরগাঁওয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী ধর্ষিত

ঠাকুরগাঁও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার কশালডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয়ের এক জেএসসি পরীক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। রোববার এ ঘটনায় বালিয়াডাঙ্গী থানায় তিনজনকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন ওই শিক্ষার্থীর বাবা।

আসামিরা হলো- শাহজাহান (২৮), আব্দুল বাতেন (৫০), সুফিয়া খাতুন (৪২)। এদের সবার বাড়ি ধারিয়া বেলসারা গ্রামে।

মামলা দায়েরের পর ধর্ষকের হুমকিতে ঘরছাড়া ওই পরিবারটি। সুষ্ঠু বিচার নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন মেয়েটির বাবা।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার পলাশবাড়ি ইউনিয়নের ধারিয়া বেলসারা গ্রামের প্রভাবশালী বাতেনের ছেলে শাহজাহান একই এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের বাড়িতে কেউ না থাকায় ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় জাহাঙ্গীরের মেয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী ঘরে পড়াশুনা করছিল। ধর্ষক শাহজাহান ঘরে ঢুকে মেয়েটিকে প্রলোভন দেখিয়ে বাইরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। মেয়েটির চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে এসে ধর্ষককে ধরে ফেলে। পরে ধর্ষকের বাবাসহ কয়েকজন সন্ত্রাসী অস্ত্র দিয়ে মেয়ের পরিবারকে ভয় দেখিয়ে ছেলেকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

মেয়েটিকে উদ্ধার করে বালিয়াডাঙ্গী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে ধর্ষকের লোকজন চিকিৎসা নিতে দেয়নি বলে অভিযোগ পরিবারের লোকজনের।

পরে মেয়েকে নিয়ে বালিয়াডাঙ্গী থানায় গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন জাহাঙ্গীর আলম।

ঠাকুরগাঁও জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দেওয়ান লালন আহম্মেদ বলেন, মামলা দায়ের হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শহরে পাঠানো হয়েছে।

You Might Also Like