এয়ারবাস এবং বোয়িং’এর সঙ্গে যৌথ প্রতিযোগিতায় নামছে চীন-রাশিয়া

রাশিয়া এবং চীন যৌথ ভাবে যাত্রীবাহী প্রশস্ত বিমান তৈরির তৎপরতায় নেমেছে। ‘এয়ারশো চায়না’য় মডেল বিমান প্রদর্শন করেছে দেশ দুইটি। বিশ্বে যাত্রীবাহী প্রশস্ত বিমান তৈরিকারী সংস্থা এয়ারবাস এবং বোয়িং’এর সঙ্গে প্রতিযোগিতার উদ্দেশ্যে এ তৎপরতা শুরু করেছে বেইজিং-মস্কো।

এ বিমান তৈরি তৎপরতায় জড়িত রয়েছে রাশিয়ার ইউনাইটেড কর্পোরেশন এবং কমার্সিয়াল এয়ারক্রাফট কর্পোরেশন অব চায়না বা সিওএমএসি। অবশ্য প্রশস্ত বিমানের কারিগরি বা আর্থিক বিষয়ে বিশদ কোনো তথ্য এখনো প্রকাশ করা হয় নি।

মার্কিন সংস্থা হনিওয়েল এবং ইউনাইটেড টেকনোলজিস কর্পোরেশন এ বিষয়ে বিমান নির্মাণের উপাদান সরবরাহের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এ নিয়ে তারা সিওএমএসি’র সঙ্গে এ নিয়ে আলাপও করেছে বলে জানানো হয়েছে।

২০২২ সালে প্রথম এ বিমান আকাশে উড়বে এবং ২০২৫ সাল থেকে এ বিমান ক্রেতাদের সরবরাহ করা শুরুর লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে আড়াইশ’ থেকে ২৮০ আসনের ১২ হাজার কিলোমিটার পাল্লার বিমান তৈরি করা হবে। বিমনাটি তৈরি হবে রাশিয়ায় এবং সংযোজন হবে চীনে। রুশ আইএল-৯৬ বিমানের নকশার ভিত্তিতে এটি নির্মিত হবে। তবে চারটির বলে এতে দু’টি ইঞ্জিন থাকবে। বিমানের ইঞ্জিন নির্মাণের কাজ রাশিয়া এরই মধ্যে শুরু করে দিয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

You Might Also Like