ভারী অস্ত্র নিয়ে মসুল থেকে পালাচ্ছে দায়েশ; ঠেকাতে চায় রাশিয়া

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, সামরিক অভিযানের মুখে ইরাকের মসুল শহর থেকে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশ সিরিয়ার দিকে পালিয়ে যাচ্ছে। এ অবস্থায় ভারী অস্ত্রসহ সন্ত্রাসীদের সিরিয়ায় প্রবেশ ঠেকাতে ইরাক সরকারের সঙ্গে মস্কো কাজ করতে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন তিনি।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ ও সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ আল-মুয়াল্লেমের সঙ্গে শুক্রবার মস্কোয় এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন ল্যাভরভ। তিনি বলেন, “আমরা মনে করি সন্ত্রাসীদেরকে সিরিয়ায় প্রবেশের সুযোগ দেয়া ঠিক হবে না। বিষয়টি নিয়ে আমরা আমেরিকা ও মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের অন্য সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করব। মসুল থেকে সিরিয়ায় গিয়ে নতুন করে সন্ত্রাসীদের তৎপরতা চালানোর সুযোগ কোনোমতেই আমরা দিতে পারি না।”
ল্যাভরভ আরো বলেন, মসুল অভিযানে অংশ নিচ্ছে মার্কিন জোটের সেনারা অথচ এই জোট কখনো দায়েশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে নি। সংবাদ সম্মেলনে তিনি পরিষ্কার করে বলেন, ইরান ও রাশিয়া সিরিয়া সরকারকে সহযোগিতা বাড়াতে প্রস্তুত রয়েছে। তিনি জাতিসংঘকে উদ্দেশ করে বলেন, বিশ্ব সংস্থার উচিত নিরপেক্ষভাবে কাজ করা; কারো উসকানিতে না পড়ে আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের মতোই কাজ করা উচিত।

সংবাদ সম্মেলনের আগে তিন মন্ত্রী ইরাক ও সিরিয়ায় সন্ত্রাস-বিরোধী কৌশল ঠিক করার জন্য আলোচনায় বসেন। সংবাদ সম্মেলনে সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কথিত মার্কিন জোট দায়েশকে রক্ষার পরিকল্পনা নিয়েছে এবং মসুল থেকে সন্ত্রাসীদেরকে সিরিয়ায় রাকায় যাওয়ার সুযোগ দিতে চায়।

You Might Also Like