রাবি শিক্ষার্থী লিপু হত্যায় রুমমেট গ্রেপ্তার

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব আবদুল লতিফ হলের শিক্ষার্থী মোতালেব হোসেন লিপু হত্যা মামলায় তার রুমমেট মনিরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

রোববার দুপুরে নগরীর মতিহার থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) অশোক চৌহান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রোববার সকালে মনিরুলকে লিপু হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে লিপুর লাশ উদ্ধারের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লিপুর রুমমেট মনিরুল ইসলাম, লিপুর বন্ধু প্রদীপ ও হলের দুই নিরাপত্তারক্ষীকে থানা হেফাজতে নেয় পুলিশ। তিনদিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রোববার সকালে মনিরুলকে গ্রেপ্তার দেখানো হলো।

এদিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে নেওয়া দুই নিরাপত্তারক্ষীকে একদিন পর ছেড়ে দিলেও শনিবার সন্ধ্যার আবার হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এর আগে লিপুর বন্ধু প্রদীপকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

মোতালেব হোসেন লিপুর হত্যার রহস্য উদঘাটনে তার রুমমেট ও হলের দুইজন নিরাপত্তারক্ষীকে নিয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

গত বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব আবদুল লতিফ হলের ডায়নিংয়ের পাশ থেকে লিপুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার মাথার ডান পাশে বড় ধরনের আঘাতের চিহ্ন আছে। ওই আঘাতের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক।লাশ উদ্ধারের পর ওইদিন সন্ধ্যায় লিপুর চাচা বশির আলী বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নবাব আবদুল লতিফ হলের এক আবাসিক শিক্ষার্থী জানান, লিপুর লাশ উদ্ধারের পর লিপুর একটি স্যান্ডেল তার রুমে এবং আরেকটি লাশ উদ্ধারের জায়গায় পাওয়া যায়। আর রুমের সামনে দুইজোড়া জুতা পাওয়া যায়।

এদিকে লিপুর বাবা বদর উদ্দিন জানিয়েছেন, রুমমেট মনিরুল ইসলামের সঙ্গে লিপুর ভাল সম্পর্ক ছিল না।

You Might Also Like