ওবামার ভেটো উল্টে দিয়েছে মার্কিন কংগ্রেস; বিপদে সৌদি

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর আমেরিকায় সন্ত্রাসী হামলার দায়ে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে মামলার সুযোগ দিয়ে পাস করা বিলে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যে ভেটো দিয়েছিলেন তা বাতিল করে দিয়েছে মার্কিন কংগ্রেস। গত ৯ সেপ্টেম্বর মার্কিন কংগ্রেস নিরংকুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার মধ্যদিয়ে ওই বিল পাস করেছিল।

বুধবার ওবামার ভেটো নাকচ করার জন্য সিনেটে ভোটাভুটি হয়েছে এবং ‘জাস্টিস অ্যাগেইনেস্ট স্পন্সরস অব টেরোরিজম অ্যাক্ট’ নামের ওই বিলের পক্ষে ৯৭ জন সিনেটর ভোট দিয়েছেন। বিলের বিপক্ষে অর্থাৎ ওবামার পক্ষে একমাত্র ভোট দিয়েছেন সিনেটের সংখ্যালঘু দলের নেতা হ্যারি রিড।

গত সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট ওবামা ভেটো দিয়ে বলেছিলেন, এ বিল আইনে পরিণত হলে তাতে মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা ও মিত্রদের স্বার্থ ক্ষুণ্ন হবে। ‌ বিলে বলা হয়েছে, ২০০১ সালের সন্ত্রাসী হামলায় জড়িতদের পৃষ্ঠপোষকতা দেয়ার জন্য ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা সৌদি সরকারের বিরুদ্ধে মামলা করতে পারবে।

বিলের পক্ষে অবস্থান নেয়া ওবামার ডেমোক্র্যাটিক দলের সিনেটর চাক শুমার বলেন, “১১ সেপ্টেম্বর যারা নিহত হয়েছিলেন তাদের বিধবা স্ত্রী ও শিশু সন্তানদের জন্য আজ হচ্ছে একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। অন্য সবসময়ের মতো আজও আমি তাদের পক্ষে আছি।” সিনেটে ভোটের পরপরই প্রতিনিধি পরিষদেও প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ভেটোর বিরুদ্ধে ভোটাভুটি হয়। সেখানেও ওবামার ভেটো বাতিল করার পক্ষে রায় এসেছে। ওবামার ভেটোর বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছেন ৩৪৮ জন পরিষদ সদস্য আর ওবামার পক্ষে ভোট দিয়েছেন ৭৭ জন। বুধবারের এ ভোটাভুটির পর এখন এ বিল আইনে পরিণত হবে যা ওবামার জন্য মারাত্মক সম্মানহানির বিষয়। পাশাপাশি সৌদি আরবের জন্য এ বিল বিপদের কারণ হয়ে উঠবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে, মার্কিন কংগ্রেসে ওবামার ভেটো নাকচ করে বিলটি আইনে পরিণত করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করায় হোয়াইট হাউজ তার নিন্দা জানিয়েছে। হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র জোশ আর্নেস্ট বলেছেন, “সিনেটে যা ঘটল সম্ভবত ১৯৮৩ সালের পর তা হচ্ছে সবচেয়ে বিব্রতকর একটি ঘটনা।” ১৯৮৩ সালে প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগানের সময় তার সিদ্ধান্ত নাকচ করেছিল সিনেট। সে সময় প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ৯৫টি ভোট পড়েছিল; পক্ষে কোনো ভোট পড়ে নি।

You Might Also Like