রাজধানীর দুই হাসপাতালকে ২২ লাখ টাকা জরিমানা

মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট ব্যবহার, নোংরা পরিবেশে সেবা প্রদানসহ বিভিন্ন অভিযোগে রাজধানীর দুই হাসপাতালকে ২২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার হাসপাতাল দুটিতে অভিযান চালায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

র‌্যাব-২ জানায়, সোনারগাঁও রোডে অবস্থিত পদ্মা জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, প্যাথলজিক্যাল রিপোর্টে ভুয়া চিকিৎসকের স্বাক্ষর। ডায়ানস্টিক টেস্টের জন্য ব্যবহৃত হচ্ছে মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট। অনুমোদন ছাড়া ব্লাড ব্যাংক পরিচালনা করা হচ্ছে। রক্ত সরবরাহের ক্ষেত্রে পাঁচটি টেস্ট বাধ্যতামুলক হলেও প্রতষ্ঠানটি তা মানছে না। এ ছাড়া সংগৃহীত রক্ত সাধারণ ফ্রিজে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। ব্লাড গ্রুপিংয়ের স্যাম্পলের ডেট ঘঁষামাজা করা হয়েছে। পদ্মা জেনারেল হাসপাতাল লিমিটেডের লাইসেন্স নেই। অত্যন্ত নোংরা পরিবেশে হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক ল্যাব পরিচালনা করা হচ্ছে। এক্স-রে রুম অত্যন্ত নোংরা।

অভিযানের সময় আবু সালেহ খান, ল্যাব ইনচার্জ কামাল হোসেন শিমুল, টেকনিশিয়ান মো. রবিউল ইসলাম এবং রিসিপশনিস্ট মৃণাল সরকারকে আটক করা হয়। পরে ওই হাসপাতালকে ১৬ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় বলে জানায় র‌্যাব।

র‌্যাব-২ আরো জানায়, একই আদালত হাতিরপুলে ব্রাইটন হাসপাতালে অভিযান চালায়। ওই হাসপাতালেও একই অবস্থা দেখতে পাওয়া যায়। হাসপাতালটির অপারেশন থিয়েটারের সামনে ময়লাযুক্ত ডাস্টবিন রাখা হয়েছে। অপারেশন থিয়েটার অপরিষ্কার। ওই হাসপাতালের ম্যানেজার মো. মাসুদ রেজা, এজিএম মো. নাজমুল হুদা ও অ্যাডমিন অফিসার রায়হান উদ্দিনকে আটক করা হয়। এ হাসপাতালকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

You Might Also Like