রংপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত

রংপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আন্তঃজেলা সড়ক ডাকাত দলের এক সদস্য নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার ভোররাতে পীরগঞ্জ উপজেলার চণ্ডিপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ডাকাতের নাম হুমায়ুন কবির (২৭)। তিনি বরিশাল জেলার কোতয়ালী থানার ডেফুলিয়া গ্রামের আব্দুস সাত্তারের পুত্র।

পীরগঞ্জ থানার ওসি রেজাউল করিম জানান, হুমাযুন কবিরসহ পাঁচ ডাকাতকে সোমবার সন্ধ্যায় আটক করা হয়। মঙ্গলবার ভোররাতে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ হুমায়ুনকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধার ও ডাকাত দলের অপর দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তারে অভিযানে নামে। এ সময় চণ্ডিপুর এলাকায় আগে থেকে ওত পেতে থাকা হুমায়ুনের সহযোগীরা পুলিশের ওপর গুলি চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে হুমায়ুন ঘটনাস্থলে নিহত হন।

বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়। আহতরা হলেন- এএসআই নাজিম উদ্দিন, কনস্টেবল মিজু ও মতিন।

নিহত হুমায়ুনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার বিকেলে ডাকাত সর্দার হুমাযুন ও তার দল পীরগঞ্জের পাট ব্যবসায়ী হাফিজার রহমানকে ১১ লাখ টাকাসহ অপহরণ করে মাইক্রোবাসে তুলে নেয়। অপহৃত ব্যবসায়ী হাফিজারের চিৎকারে বিক্ষুব্ধ জনতা ডাকাত দলকে আটক করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাইক্রোবাসটি আটক, অপহৃত হাফিজার ও ছিনতাইকৃত ১১ লাখ টাকা উদ্ধারসহ পাঁচ ডাকাতকে আটক করে প্রথমে মিঠাপুকুর পরে পীরগঞ্জ থানায় নিয়ে যায়। মঙ্গলবার ভোর রাতে পুলিশ হুমাযুনকে নিয়ে অভিযানে গেলে বন্দুকযুদ্ধে তিনি নিহত হন।

You Might Also Like