‘ভারতীয় বাহিনী কত শিশুকে এতিম করেছে কাশ্মিরে এসে দেখে যান’

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের হিজবুল মুজাহেদিনের স্থানীয় কমান্ডার রিয়াজ মালিক সম্প্রতি সেখানে নিহত ভারতীয় আধা সামরিক বাহিনীর কমান্ড্যান্ড প্রমোদ কুমারের স্ত্রী এবং মেয়েকে শ্রীনগর সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। তিনি এক ভিডিও বার্তায় এ আমন্ত্রণ জানান।
ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরি মানুষদের বেদনা অনুধাবন এবং ভারতীয় বাহিনীর হাতে কত শিশু এতিম হয়েছে তা দেখে যাওয়ার জন্য এ সফরের আমন্ত্রণ জানানো হয়।

১১ মিনিটের ভিডিও বার্তায় রিয়াজ মালিক বলেন, মি. প্রমোদ কুমারের মেয়ে যখন বলেছে, সে তার বাবাকে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসত, তখন আমার চোখে পানিতে ভরে গেছে। কোনো সন্তান পিতৃহারা হোক তা কাশ্মিরের গেরিলারা চায় না উল্লেখ করে তিনি দাবি করেন, দখলদারিত্ব চাপিয়ে দিয়ে ভারতই তাদেরকে অস্ত্র তুলে নিতে বাধ্য করেছে। প্রমোদের স্ত্রীকে কাশ্মিরে আসার আমন্ত্রণ জানিয়ে রিয়াজ মালিক বলেন, ভারতীয় বাহিনীর হাতে কত শিশু এতিম হয়েছে, কত স্ত্রী স্বামীহারা হয়েছে কাশ্মিরে এলে তা দেখতে পাবেন ।
পাশাপাশি কাশ্মিরে নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণাও দেন রিয়াজ মালিক। তিনি বলেন, সাবেক হিজবুল কমান্ডার বুরহান ওয়ানিকে হত্যা করা হলে কাশ্মিরে শান্তিতে থাকতে পারবে বলে ভারত ভেবেছিল। কাশ্মির ত্যাগ না করলে ভারত শান্তি পাবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, আধা সামরিক বাহিনী সিআরপিএফএর সদস্য মি. প্রমোদের মতোই ভারতীয় বাহিনীর সদস্যদের লাশ ভর্তি ট্রাক কাশ্মির থেকে পাঠানো হবে।
এ ছাড়া, কাশ্মিরের গেরিলাদের সন্ত্রাসী হিসেবে চিহ্নিত করার বিরুদ্ধেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন হিজবুল মুজাহেদিন কমান্ডার। তিনি নিজেদেরকে যোদ্ধা হিসেবে দাবি করে বলেন, আত্ম-নিয়ন্ত্রণ অধিকার লাভের জন্য তারা লড়ছে। মানবতার মশাল তারা বহন করছে বলেও দাবি করেন রিয়াজ মালিক।

এ ছাড়া, কাশ্মির থেকে চলে যাওয়া হিন্দু পণ্ডিতরা যদি আবার এ উপত্যকায় ফিরে আসেন তবে তাদের স্বাগত জানানো হবে বলেও ঘোষণা করেন তিনি। রিয়াজ মালিক বলেন, তাদের অভিভাবকের দায়িত্ব নেবে কাশ্মিরের গেরিলারা। অবশ্য হিন্দু পণ্ডিতদের উদ্দেশ্যে গেরিলাদের পক্ষ থেকে এমন বার্তা দেয়ার ঘটনা খুবই বিরল।

You Might Also Like