প্রথমবারের মতো হিজাব পরার অনুমতি পেল তুর্কি পুলিশ

তুর্কি সরকার প্রথমবারের মতো দেশটির মহিলা পুলিশকে স্কার্ফ পরার অনুমতি দিয়েছে। এখন থেকে পুলিশের ইউনিফর্মের অংশ হিসেবেই ইচ্ছুক নারী পুলিশ সদস্যরা মাথায় স্কার্ফ পরতে পারবেন।

সেক্যুলার শাসনব্যবস্থায় পরিচালিত তুরস্কে যেসব মহিলা পুলিশ কর্তব্য পালনের সময় হিজাব পরতে চান তাদের সুবিধার্তে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

শনিবার প্রকাশিত তুর্কি সরকারি নির্দেশনামায় বলা হয়েছে, পুলিশের জন্য প্রদত্ত টুপি বা হেলমেটের নীচে ইউনিফর্মের রঙের সঙ্গে মিল রেখে হেডস্কার্ফ পরতে পারবেন নারী সদস্যরা।

এর আগে ২০১০ সালে আঙ্কারা সরকার দেশটির বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রীদের হিজাব পরিধানের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়। একই নিষেধাজ্ঞা তুরস্কের হাইস্কুলের ছাত্রীদের জন্য তোলা হয় ২০১৪ সালে।
প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের নেতৃত্বাধীন জাস্টিস এন্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির সরকার দেশটির সেক্যুলার মূল্যবোধগুলো একে একে তুলে দিচ্ছেন বলে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ করছে সরকার বিরোধীরা। ১৯২৩ সালে মুস্তফা কামাল আতাতুর্ক দেশটিতে সেক্যুলার শাসনব্যবস্থা প্রবর্তন করেছিলেন।

তবে বিরোধীদের সমালোচনার জবাবে তুরস্কের সরকার-পন্থি গণমাধ্যম জানিয়েছে, পশ্চিমা বহু দেশ আরো অনেক আগেই স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের পাশাপাশি মহিলা পুলিশদের হেডস্কার্ফ পরার অনুমতি দিয়েছে।

You Might Also Like