সিলেট ডিষ্ট্রিক্ট সোসাইটির ৪৫ কৃতি শিক্ষার্থীকে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান

বর্ণাঢ্য আর ব্যতিক্রমী আয়োজনে নিউইয়র্কের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪৫জন কৃতি শিক্ষার্থীকে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করে সম্মানিত করলো সিলেট ডিষ্ট্রিক্ট সোসাইটি, নিউইয়র্ক ইনক। ‘সিলেট সোসাইটি এওয়ার্ড’২০১৪ শীর্ষক এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কনসাল জেনারেল শামীম আহসান।

সিটির এস্টোরিয়াস্থ ক্লাব সনম-এ গত ২৫ মে সন্ধ্যায় আয়োজিত বর্ণাঢ্য এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সিলেট ডিষ্ট্রিক্ট সোসাইটি নিউইয়র্ক ইন্ক’র সভাপতি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক এমপি ও সাপ্তাহিক ঠিকানা’র সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এম এম শাহীন, সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা’র সম্পাদক ও টাইম টেলিভিশনের সিইও আবু তাহের, নিউইয়র্ক সিটি ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. মহসীন পাটোয়ারী, ফিলাডেলফিয়া ডেক্সটেল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ডা. জিয়াউদ্দিন আহমেদ, লং আইল্যান্ড ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. শওকত আলী, ষ্টেট এ্যাম্বেলীম্যান মাইক মিলার, বাংলাদেশ সোসাইটি ইন্ক নিউইয়র্কের সভাপতি কামাল আহমেদ, জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকার সভাপতি বদরুল হোসেন খান, এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি জন এন উদ্দিন ও সিলেট ডিষ্ট্রিক্ট সোসাইটির সাবেক সভাপতি জুনেদ আহমেদ চৌধুরী।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন সংগঠনের কোষাধ্যক্ষ মাওলানা রশীদ আহমেদ। এরপর এক মিনিট নিরাতা পালন শেষে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের পর স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেট ডিষ্ট্রিক্ট সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ এনাম আহমেদ। অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ ছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন সংগঠনের ট্রাষ্টিবোর্ডের সদস্য মনজুর আহমেদ চৌধুরী, মামুন টিউটোরিয়ালের প্রেসিডেন্ট ও সিইও শেখ আল মামুন, বাংলাদেশী আমেরিকান ডেমোক্রেটিক কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক কবীর চৌধুরী, বিশিষ্ট সমাজ সেবক আবু ইউসুফ, তরুণ সংগঠক জাহাঙ্গীর কবীর, গোলাপগঞ্জ এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুহিন চৌধুরী।

কমিউনিটিতে কর্ম ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য অনুষ্ঠানে নিউইয়র্ক ষ্টেট এ্যাসেম্বলীম্যান মাইক মিলার প্রদত্ত সাইটেশন গ্রহণ করেন বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি কামাল আহমেদ, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি বদরুল হোসেন খান, এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি জন এন উদ্দিন, বাংলাদেশ সোসাইটির সহ সভাপতি ও জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান সেলিম, গোলাপগঞ্জ এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুহিন চৌধুরী, বিশিষ্ট সংগঠক শামসুল হক, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুর নূর বড় ভূঁইয়া, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুর রহীম বাদশা, তৌফিকুর রহমান ফারুক ও গুলজার আলী। কনসাল জেনারেল শামীম আহসান তাদের হাতে সাইটেশন তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে এটর্নী মঈন চৌধুরী ও শেখ আল মামুনসহ অতিথিবৃন্দ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪৫ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সৈয়দ এনাম আহমেদ ও ফাতেমা শাহাব রুমা।

অনুষ্ঠানে কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মধ্যে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ট্রাষ্টি বোর্ডেন সদস্য আব্দুল হাসিম হাসনু, বাংলাদেশী আমেরিকান ডেমোক্রেটিক কাউন্সিলের সিনিয়র সহ সভাপতি সৈয়দ ইলিয়াস খসরু, বিশিষ্ট সংগঠক আহবাব হোসেন চৌধুরী খোকন, এবাদুর রহমান খালেদ, বিশিষ্ট রাজনীতিক শেখ আতিক, বাংলাদেশ সোসাইটি অব ব্রঙ্কস’র সাধারণ সম্পাদক এ ইসলাম মামুন, সিলেট ডিষ্ট্রিক্ট সোসাইটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুময়ুন আহমেদ চৌধুরী, গোলাম মর্তুজা, শহীদুল ইসলাম দুখু, তানউইর শামীম লোবান, আহমেদুল হক কনু, জাকির আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা এমন অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রশংসা করেন এবং দেশীয় শিল্প-সংস্কৃতি লালন-পালনের মাধ্যমে নিজেদেরকে যোগ্য বাংলাদেশী-আমেরিকান হিসেবে গড়ে তোলার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান। বক্তারা বলেন, আমাদের আজকের কৃতি শিক্ষার্থীরাই আমাদের ভবিষ্যত, আমাদের অহংকার। বক্তারা আগামী দিনে আরো সাফল্য বয়ে আনার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান এবং আমেরিকায় বাংলাদেশের মর্যাদাকে আরো সম্মানিত করবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। স্বপ্ন দেখেন একদিন বাংলাদেশী-আমেরিকানরাই যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব দেনে।

অনুষ্ঠানে অতিথি আর কৃতি শিক্ষার্থীদের কলকাকলিতে অনুষ্ঠানস্থল মুখরিত হয়ে উঠে। টাইম টেলিভিশন টোটাল ক্যাবলের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করে।

You Might Also Like