সাভারে নকল ঔষধ তৈরির কারখানায় অভিযান : আটক ৯

সাভারে নকল ঔষধ তৈরির কারখানায় অভিযান চালিয়ে ৯ জনকে সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হোসেন মোল্লা উপজেলা কার্যালয়ের পাশে গেন্ডা এলাকার এসএফ ল্যাবরেটরি নামের একটি কারখানায় এ অভিযান পরিচালনা করেন।

আটককৃতদের মধ্যে মনির হোসেনকে (৩৮) এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। আটক বাকি আটজন হলেন- মামুন (২৩), মুকুল (২৪), এনামুল (১৮), আলমগীর (২৩), ইউসুফ (২০), আমিনুল (২৭), জাহাঙ্গীর (২০) ও মোজ্জাম্মেল (২৩)। এদের প্রত্যেককে ছয় মাস করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মনির হোসেন কুমিল্লার ঘোনাইপাড়া এলাকার সামছুল হকের ছেলে। তিনি ওই কারখানার ইনচার্জের দায়িত্বে আছেন।

এলাকাবাসী জানায়, সাভার উপজেলা চত্বরের পাশেই গেন্ডা এলাকায় একটি ঔষধ তৈরির কারখানায় কিছু দিন ধরে বিভিন্ন দামি ব্রান্ডের নাম ব্যবহার করে নকল ঔষধ উৎপাদন করে আসছিল কারখানা কর্তৃপক্ষ। এ সময় ওই কারখানা থেকে বিপুল পরিমান নকল ঔষধ জব্দ করা হয়েছে।

এছাড়াও ঘটনাস্থল থেকে নকল ঔষধ উৎপাদন করার দায়ে ৯ জনকে আটক করা হয়। পরে সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে আটককৃতদের সাজা প্রদান করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

এছাড়াও কারখানা থেকে জব্দ করা বিপুল পরিমান নকল ঔষধ পুড়িয়ে ফেলা হয় ও কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হাসান মোল্লা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ভেজাল ঔষধ উৎপাদন ও বিক্রির দায়ে ৯ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। তবে কারখানার মালিক আব্দুল জব্বারকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

You Might Also Like