অস্ট্রেলিয়ায় আশ্রয় শিবিরে নির্যাতনের নথি ফাঁস

অস্ট্রেলিয়ার নাউরুতে এ্কটি আশ্রয় শিবিরে অভিবাসন প্রত্যাশীদের ওপর ব্যাপক নির্যাতন ও মানসিক পীড়নের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সংক্রান্ত প্রায় দুই হাজার নথি ফাঁস হয়েছে বলে মঙ্গলবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান জানিয়েছে।

সাগরপথে অবৈধভাবে অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের চেষ্টাকারী অভিবাসন প্রত্যাশীদের অস্ট্রেলিয়া সরকার প্রশান্ত মহাসাগরের দুটি দ্বীপে নির্মাণ করা আশ্রয় শিবিরে আটক রাখে। এগুলোর একটি হচ্ছে নাউরু দ্বীপ এবাং অপরটি হচ্ছে পাপুয়া নিউ গিনির মানুস আইল্যান্ড। এই আশ্রয় শিবির দুটিতে অভিবাসন প্রত্যাশীদের ওপর শিবিরের কর্মকর্তা ও নিরাপত্তা প্রহরীরা নির্যাতন চালায় বলে অভিযোগ করেছিল মানবাধিকার সংগঠনগুলো। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া সরকারের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপই নেওয়া হয়নি।

যে প্রতিষ্ঠানটি এই দুটি আশ্রয় শিবির পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে, নির্দিষ্ট সময় পরে তাদের ওপর শিবিরের বিষয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিলের দায়িত্ব রয়েছে। ২০১৩ সালের মে থেকে ২০১৫ সালের অক্টোবর পর্যন্ত লেখা এসব নথিতে অভিবাসন প্রত্যাশীদের ওপর ভয়াবহ মানসিক ও শাররীক নির্যাতনের তথ্য দেওয়া হয়েছে।

এসব নথির একটি বড় অংশজুড়ে শিশু নির্যাতনের কথা বলা হয়েছে। এসব শিশু নির্যাতন ও নিপীড়নের কারণে মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এক কিশোরী মূত্রত্যাগ করতে চাইলে তার গোপনাঙ্গের দিকে টর্চলাইট তাক করে রেখেছিল এক নিরাপত্ত প্রহরী। আরেক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অভিবাসন শিবিরে প্রতিদিনের সহিংসতার কারণে শিশুরা রাতে রক্ত ও মৃত্যুর দুঃস্বপ্ন দেখে । এ কারণে তারা আত্মহত্যাও করতে চায়।

দুই হাজারের মধ্যে ২৩ টি প্রতিবেদনে তরুণীদের ওপর যৌন নিপীড়নের অভিযোগ রয়েছে। এগুলোর একটি বলা হয়েছে, বাস চালকরা আশ্রয় শিবিরের কাছ দিয়ে যাওয়ার সময় অভিবাসন প্রত্যাশী তরুনীদের ছবি তুলে নিয়ে যায় এবং পরে তা দেখে হস্তমৈথুন করে।

অপর কয়েকটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্কুলে শরণার্থী বালিকাদের যৌন হয়রানি করা হয় এবং তাদের দেহ স্পর্শ করা হয়। এমনকি তাদেরকে সিগারেট ও গাঁজার বিনিময়ে যৌনকর্মের কথাও বলা হয়।

You Might Also Like