‘ট্রাম্পের দয়ামায়া নেই’

২০০৪ সালে ইরাক যুদ্ধে নিহত এক মুসলিম সেনার বাবা খিজির খান বলেছেন, ‘ডোনাল্ড ট্রাম্পের দয়ামায় নেই (ব্লাক সোল)।’

রোববার সিএনএনের স্টেট অব ইউনিয়ন প্রোগ্রামে খিজির খান আশা প্রকাশ করেছেন, ‘ট্রাম্পের পরিবার তাকে সহানুভূতি সম্পর্কে কিছু শিক্ষা দেবে।’

খান বলেন, ‘তিনি সম্পূর্ণই দয়ামায়াহীন এবং এ ধরনের লোক এ দেশের নেতা হওয়ার যোগ্য নন। যে ভালোবাসা ও আবেগ আমরা পেয়েছি, তাতে আমাদের শোক এবং এ দেশে আমাদের অভিজ্ঞতাকে ইতিবাচক ও সঠিক বলে জেনেছি। বিশ্ব আমাদের যেভাবে গ্রহণ করছে, তা অভূতপূর্ব। বিশ্ববাসী দেখছে তার চরিত্রের পঙ্কিলতা এবং তার পাষাণ হৃদয়।’

ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় সম্মেলনে বক্তব্য দেওয়ার সময় খিজির খান যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের একটি পকেট কপি তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘ট্রাম্প তার মুসলিম পরিবারকে যুক্তরাষ্ট্রে নাও প্রবেশ করতে দিতে পারেন। ’ এরপর থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বে নজরে আসেন খিজির খান।

ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় সম্মেলনে খিজির খান কথা বলার সময় তার পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন তার স্ত্রী গাজালা খান। ট্রাম্প তার সম্পর্কে মন্তব্য করেন, ‘তার (গাজালা) কিছু বলার নেই… সম্ভবত তাকে কিছু বলতে দেওয়া হচ্ছে না।’

ট্রাম্পের এই মন্তব্যের প্রতিবাদ করেন খিজির খান ও তার স্ত্রী গাজালা খান। খিজির খান জানিয়েছেন, তার স্ত্রী একজন গোল্ড স্টারের (যুদ্ধে নিহত তাদের ছেলেকে দেওয়া সামরিক মর্যাদা) মা। সে আমার সঙ্গে দাঁড়িয়ে ছিল। আমি তাকে বলেছিলাম, তুমি কিছু বলতে চাও কি না। সে বলেছিল, কথা বলার শক্তি নেই তার।
a

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য বহুল সামালোচিত। আবারো একজন গোল্ড স্টারের মাকে নিয়ে মন্তব্য করে সমালোচনায় জড়ালেন তিনি।

ট্রাম্প সম্পর্কে খিজির খান বলেছেন, ‘যারা নেতা হতে চান বা ইচ্ছা প্রকাশ করেন, তাদের দুটি জিনিস অবশ্যই থাকতে হয়। একটি নৈতিক মানদন্ড এবং দ্বিতীয়টি সমনানুভূতি।’

মার্কিন কংগ্রেসের স্পিকার ও রিপাবলিকান নেতা পল রায়ান এবং সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা মিচ ম্যাক কনেলের প্রতি খিজির খান আহ্বান জানিয়েছেন, তারা যেন ট্রাম্পকে দেওয়া তাদের সমর্থন প্রত্যাহার করেন। ‘এটি তাদের নৈতিক দায়িত্ব- না হলে ইতিহাস তাদের ক্ষমা করবে না।’

তবে ট্রাম্পও বিষয়টি নিয়ে জল ঘোলা করতে ছাড়েননি। ট্রাম্প এক টুইটে বলেছেন, ‘ডেমোক্রেটিক কনভেশনে আমাকে মারাত্মকভাবে আক্রমণ করেছেন খান। আমি কি প্রতিক্রিয়া দেখানোর সুযোগ পাব না? ইরাক যুদ্ধের পক্ষে ভোট দিতে পারেন হিলারি কিন্তু আমাকে নয়!’

উল্লেখ্য, ফিলাডেলফিয়ায় ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় সম্মেলনে হিলারি ক্লিনটনকে দলের চূড়ান্ত মনোনয়ন দেওয়া হয়। ৮ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে, যেখানে লড়বেন হিলারি ও ট্রাম্প।

You Might Also Like