অলিম্পিকে নেইমারের অনুপ্রেরণা মেসি

লিওনেল মেসির ওপর বার্সেলোনার অতি নির্ভরশীলতা প্রশ্নাতীত। এটিকেই অনুপ্রেরণা হিসেবে নিচ্ছেন নেইমার। ব্রাজিলের অধরা অলিম্পিক মিশনে প্রত্যাশার চাপকে ইতিবাচকভাবেই দেখছেন সেলেকাও অধিনায়ক।

আগামী ৪ আগস্ট রিও অলিম্পিকের পর্দা উঠবে। ঘরের মাটিতে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের সামনে বহুল কাঙ্ক্ষিত গোল্ড জয়ের চ্যালেঞ্জ। সন্দেহাতীতভাবেই নেইমারের ওপর ব্রাজিলের ভাগ্য নির্ভর করছে! যদি সেটিই হয় তবুও এতে কোনো সমস্যা দেখছেন না বার্সেলোনা তারকা।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১টায় খেলা শুরু হবে। ‘এ’ গ্রুপের বাকি দুই দল ইরাক ও ডেনমার্ক।

২৪ বছর বয়সী নেইমার তার নিজের গুরুত্ব প্রচার করছেন না। বরং ক্লাব সতীর্থ মেসির কথাই তুলে ধরেন। অলিম্পিক আসরে যে আর্জেন্টাইন আইকনকেই অনুপ্রেরণা হিসেবে নিচ্ছেন ব্রাজিলিয়ান সেনসেশন।

এক প্রেস কনফারেন্সে নেইমার বলেন, ‘আমি কখনোই নিজের সম্পর্কে বলতে পছ্ন্দ করি না। কিন্তু আমি বার্সেলোনার উদাহরণ দিব। আমাদের সেরা খেলোয়াড় আছে কিন্তু কেউ কী অস্বীকার করতে পারবো যে আমরা মেসির ওপর নির্ভরশীল নই? অবশ্যই আমরা তার ওপর নির্ভরশীল। আমি মেসির জন্য খেলতে লজ্জিত নই। মেসিই বিশ্বের সেরা, আমি তার ওপর নির্ভর করতে চাই।’

‘জয়ী হওয়াটা খুবই ভালো‍। চাপ ফুটবলেরই অংশ। তার জন্যই আমি এখানে। এটা খেলার একটা অংশ যখন মাঠে নামবো তখন থেকেই চাপ আসবে। অন্যরা (অলিম্পক দল) তরুণ, কিন্তু নিজ দেশে ব্রাজিলের হয়ে অলিম্পিকে খেলার জন্য আমরা প্রত্যেকেই নিজেদের দায়িত্বটা জানি। আমি এ নিয়ে উদ্বিগ্ন নই। জয়ই ভয় দূর করবে। আমি পরাজয় নিয়েও ভীত নই। যদি আমরা হারি, এটা গৌরবের সঙ্গেই হতে পারে।’-যোগ করেন নেইমার।

একদিকে অলিম্পিক স্বপ্নে নেইমারকে অনুপ্রেরণা হিসেবে নিচ্ছে ব্রাজিল, অন্যদিকে স্বয়ং নেইমারেরই অনুপ্রেরণার নাম ২০০৮ অলিম্পিক জয়ী মেসি।

You Might Also Like