আম আদমির কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে, মোদি আমাকে হত্যাও করতে পারেন: কেজরিওয়াল

ভারতের দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী ও আম আদমি পার্টির প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে আম আদমির কণ্ঠরোধ করার অভিযোগ তুলেছেন। এমনকি তিনি হতাশার কারণে তাকে হত্যাও করতে পারেন বলে অভিযোগ চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করেছেন কেজরিওয়াল।

কেজরিওয়াল বুধবার এক ভিডিও বার্তায় ‘প্রধানমন্ত্রী মোদি এবং কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেন, ‘এ পর্যন্ত আম আদমি পার্টির ১০ জন বিধায়ককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমাদের সংসদ সদস্য ভগবন্ত মানকে বরখাস্ত করা দেয়া হয়েছে। সত্যেন্দ্র সিং, মনিষ সিসোদিয়ার বিরুদ্ধেও তদন্ত চালানো হচ্ছে।’

কেজরিওয়াল বলেন, ‘কিছু লোক বলে থাকেন আপনি সব কিছুতেই মোদিকে দায়ী করে থাকেন। কিন্তু আমি জানতে চাই এসব কে করাচ্ছে? যদি আয়কর দফতর, সিবিআই, দিল্লি পুলিশ একসঙ্গে আমাদের পিছনে লাগে তাহলে এদের কোনো মাস্টারমাইন্ড আছে। কে এই মাস্টারমাইন্ড? এটা কি অমিত শাহ, মোদিজী না পিএমও? এরা সব একই। মোদিজীর কথাতেই অমিত শাহ এসব করাচ্ছেন।’

কেজরিওয়াল আজ দলীয় নেতা-কর্মী, বিধায়কদের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘এ ধরণের দমন নীতি বহুদূর পর্যন্ত যেতে পারে। এরা যা কিছু করতে পারে, কাউকে হত্যা করতে পারে। আমাকেও হত্যা করতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘আম আদমি পার্টির সমস্ত কর্মী জেলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকুন, এমনকি মৃত্যুর জন্যও। যারা ভয় পাচ্ছেন তারা দল ছেড়ে যেতে পারেন।’

কেজরিওয়াল আজ বলেন, ‘ভিতরের লোকজন বলছেন, মোদিজী আমাদের নিয়ে হতাশায় রয়েছেন। খুব রেগে রয়েছেন। কোনো বিধায়কের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ প্রমাণ করতে পারছে না। প্রত্যেক মামলায় আদালত পুলিশের কঠোর সমালোচনা করছে। প্রধানমন্ত্রীর মাথায় কাজ করছে না।’

কেজরিওয়ালের দাবি, প্রধানমন্ত্রী রেগে গিয়ে হতাশ হয়ে এ ধরণের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন।

তিনি প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘যদি কোনো দেশের রাজা রাগের মাথায় এ ধরণের সিদ্ধান্ত নিতে থাকেন তা খুব বিপজ্জনক ব্যাপার। আমাদের বিধায়কদের তো সবাইকে জেলে পাঠাবেন, কিন্তু দেশ কী নিরাপদ হাতে আছে?’

তিনি মোদির পররাষ্ট্রনীতি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি নেপালের সঙ্গে অতীতে ভারতের সম্পর্ক এবং বর্তমান সম্পর্কের কথা তুলে ধরেন। একইভাবে পাকিস্তান সম্পর্কে মোদির নীতির সমালোচনা করেন তিনি। কেজরিওয়াল বলেন, একদিন আপনি ‘হ্যাপি বার্থ ডে’ বলার জন্য চলে গেলেন, পরে আইএসআইকে ডেকে আনলেন। ফের তাদের দোষারোপ করলেন। আজ এক রকম, কাল একরকম।’

কেজরিওয়াল বলেন, ‘মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সমস্ত অংশের মানুষ ক্ষুব্ধ। সরকার সমস্ত ক্ষেত্রে ব্যর্থ। ব্যবসায়ী, ছাত্র, দলিত, সংখ্যালঘু সকলেই তাদের উপরে অখুশি। মোদিজী বিরোধীদের শেষ করার জন্য চেষ্টা করছেন। তিনি একের পর এক সমস্ত দলকে চূর্ণ করছেন। এজন্যই কংগ্রেস সহ অন্যদের সাহস নেই আওয়াজ ওঠানোর।’

প্রসঙ্গত, গত বছর ডিসেম্বরে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআই দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে তল্লাশি চালানোয় ক্ষুব্ধ কেজরিওয়াল সেসময় প্রধানমন্ত্রী মোদিকে কাপুরুষ এবং মানসিক বিকারগ্রস্ত বলে অভিহিত করেছিলেন।

You Might Also Like