কোহলি নন, সেরা হিসেবে এগিয়ে রুট

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ডাবল শতক হাঁকিয়ে ক্রিকেট বোদ্ধাদের প্রশংসা কুঁড়াচ্ছেন ভারতের দলপতি বিরাট কোহলি। তবে, পাকিস্তানের সাবেক কিংবদন্তি মোহাম্মদ ইউসুফের দৃষ্টিতে বর্তমান সময়ে কোহলি নন, সাদা পোশাকে সেরা ব্যাটসম্যান ইংল্যান্ডের জো রুট।

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে সফরকারী পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে জো রুট ২৫৪ রানের মহাকাব্যিক ইনিংস খেলেন। দ্বিতীয় ইনিংসে অপরাজিত ছিলেন ৭১ রান নিয়ে। পাকিস্তানের সফল ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ ইউসুফ রুটের অনবদ্য ব্যাটিংকেই কোহলির থেকে এগিয়ে রাখলেন।

যদিও ডাবল সেঞ্চুরি দিয়ে কোহলি টপকে গেছেন পূর্বসূরি রাহুল দ্রাবিড়, মোহাম্মদ আজহার উদ্দিন, কপিল দেবদের। টেস্ট ক্যারিয়ারে কোহলির সর্বোচ্চ রান ছিল ১৬৯। ২০১৪ সালে মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেই ইনিংসটি খেলেন তিনি। সেটিও এবার টপকে যান কোহলি। টেস্ট ক্রিকেটে ৭৩তম ইনিংসে এসে ৩ হাজার রানের মাইলফলকও স্পর্শ করেন তিনি। বিদেশের মাটিতে ভারতীয় কোনো অধিনায়কের এটিই প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি।

শুধু তাই নয়, এটি কোনো ভারতীয় দলপতি হয়ে সর্বোচ্চ ইনিংসও। অধিনায়ক হওয়ার পর দেশের বাইরে এ নিয়ে পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছেন ডানহাতি স্টাইলিশ এই তারকা ব্যাটসম্যান। এর আগে ভারতের হয়ে দেশের বাইরে অধিনায়ক হিসেবে পাঁচটি সেঞ্চুরি আছে শুধু মোহাম্মদ আজহারউদ্দিনের। ৪১ ইনিংসে আজাহার তার সেই পাঁচটি শতকের দেখা পেয়েছিলেন। যেখানে কোহলি তার এই পাঁচটি শতক হাঁকালেন মাত্র ১২টি ইনিংস খেলে।

কার্টলি অ্যামব্রোস, কোর্টনি ওয়ালসদের দেশে টিম ইন্ডিয়ার হয়ে এর আগে সেঞ্চুরির কীর্তি ছিল ভারতের দুজন অধিনায়কের। ১৯৮৩ সালে পোর্ট অব স্পেনে কপিল দেব অপরাজিত ১০০ রান করেছিলেন। আর সেন্ট লুসিয়ায় ২০০৬ সালে রাহুল দ্রাবিড় ১৪৬ রান করেছিলেন। ডাবল সেঞ্চুরি দিয়ে টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক কোহলি নিজের পূর্বসূরিদের আরও একবার ছাড়িয়ে যান।

এতোকিছুর পরও কোহলির রেকর্ড আর মহাকাব্যিক সেই ইনিংস মনে ধরছে না ইউসুফের। তিনি জানান, ‘রুট ক্রিকেটের তিন ফরমেটেই দুর্দান্ত। তার ব্যালেন্স, শট সিলেকশন, টাইমিং সব কিছুই দুর্দান্ত। পাকিস্তানের বিপক্ষে তার ডাবল শতকটি আমার কাছে রত্ন। সে খুব অল্প সময় হলো ক্রিকেটে এসেছে। কিন্তু, কি সুন্দর করেই না নিজেকে একজন বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে প্রমাণ করছে।’

কোহলি প্রসঙ্গে পাকিস্তানের সাবেক এই ব্যাটসম্যান জানান, ‘কোনো সন্দেহ নেই কোহলির ক্ষমতা সম্পর্কে। কোহলি, এবিডি ভিলিয়ার্স নিজেদের বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে আরও উপরের দিকে যাচ্ছে। তবে, আমার দৃষ্টিতে রুটই বর্তমান সেরা ব্যাটসম্যান।’

ইউসুফ আরও যোগ করেন, ‘আমার কাছে সব সময় মনে হয় টেস্টের মতো বড় কিছু ক্রিকেটে নেই। এই লেভেলের ক্রিকেট খেলতে সত্যিকারের ব্যাটসম্যান হতে হয়, তাহলেই শুধু সাফল্য ধরা দেবে। যেমনটি দেখছি রুটের ক্ষেত্রে। আমার পয়েন্ট হলো টেস্টের সাফল্য আগে, তারপর অন্য ফরমেট।’

ইউসুফ ৯০ টেস্টে পাকিস্তানের হয়ে ২৪টি শতকের পাশাপাশি ৩৩টি অর্ধশতকে করেছেন সাড়ে সাত হাজারের অধিক রান। ওয়ানডেতে ২৮৮ ম্যাচ খেলা এই কিংবদন্তি ১৫টি শতক আর ৬৪টি অর্ধশতকে করেছেন ৯,৭২০ রান। সাদা পোশাকে তার রয়েছে চারটি ডাবল শতক।

You Might Also Like