টেস্ট সেরা অস্ট্রেলিয়া, সুযোগ থাকছে অন্যদেরও

টেস্টের শীর্ষ দেশ হিসেবে পুরস্কার লাভ করলো অস্ট্রেলিয়া। সোমবার (২৫ জুলাই) আইসিসি থেকে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের এক মিলিয়ন মার্কিন ডলার গ্রহণ করেন অজি অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। টেস্টে র‌্যাংকিংয়ে এ বছরের ০১ এপ্রিল থেকে শীর্ষে থাকায় পুরস্কার ওঠে দলটির হাতে।

অস্ট্রেলিয়া দল টেস্টে সিরিজ খেলতে বর্তমানে শ্রীলঙ্কায় অবস্থান করছে। আর সেখানে স্মিথের হাতে পুরস্কার তুলে দেন আইসিসি’র প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন। স্মিথ গত এক বছরে অজিদের নেতৃত্ব দিয়ে ১০টি টেস্টে জয় লাভ করেন।

স্মিথ জানান, ‘টেস্টের এক নম্বর দল হতে পারাটা দুর্দান্ত ব্যাপার। এর কৃতিত্ব পুরো দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের। আমি আমার তরুণ এ দলটিকে নিয়ে গর্বিত। যারা জয়ের জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছে তাদের ধন্যবাদ।’

এ বছর টেস্টে শীর্ষ দল হতে অজিদের বেশ পরিশ্রম করতে হয়। কারণ সেরা চার দলের পয়েন্ট ব্যবধান মাত্র ১০। যেখানে দ্বিতীয় ভারত, তৃতীয় পাকিস্তান ও চতুর্থ ইংল্যান্ড। তবে প্রত্যেকেরই খুব কম সময়ের মধ্যে শীর্ষে জায়গা করে নেওয়ার সুযোগ আছে। আর এটি নির্ভর করছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ভারত, ইংল্যান্ড-পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের ওপর।

অজিদের জন্য শীর্ষে থাকার সমীকরণটা সহজ। লঙ্কানদের বিপক্ষে তারা ১-০তে সিরিজ জয় ও পাশাপাশি আশা করতে হবে ইংল্যান্ড যেন পাকিস্তানের বিপক্ষে চলমান সিরিজের অন্তত একটি ম্যাচে জয় পায়।

এদিকে ভারত যদি ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ৪-০তে জেতে আর ইংল্যান্ড-পাকিস্তান সিরিজ ড্র হয় তাহলেও এক নম্বরেই থাকবে অজিরা। অন্যদিকে শ্রীলঙ্কা যদি ১-০ অথবা আরও ভালো ব্যবধানে অজিদের বিপক্ষে জয় পায় তবে ভারত শীর্ষে চলে যাবে।

পাকিস্তানের সামনেও থাকছে ভালো সুযোগ। যদি দলটি ইংলিশদের বিপক্ষে জয় পায় আর লঙ্কানরা হারায় অজিদের, তবে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো শীর্ষে জায়গা করে নেবে পাকিস্তান। এ ক্ষেত্রে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ভারত সিরিজ কোনো প্রভাব ফেলবে না।

এদিকে ইংলিশদেরও শীর্ষে ওঠার সুযোগ থাকছে। তবে এ ক্ষেত্রে তাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। পাকিস্তানের বিপক্ষে জিততে হবে সিরিজের শেষ তিন ম্যাচ। অন্যদিকে ক্যারিবীয়দের একটি বা তার বেশি ম্যাচ জিততে হবে ভারতের বিপক্ষে। আর অজিদের হারাতে হবে লঙ্কাকে।

আইসিসি টেস্ট টিম র‌্যাংকিং পয়েন্ট সহ: ১। অস্ট্রেলিয়া ১১৮, ২। ভারত ১১২, ৩। পাকিস্তান ১১১, ৪। ইংল্যান্ড ১০৮, ৫। নিউজিল্যান্ড ৯৮, ৬। দক্ষিণ আফ্রিকা ৯২, ৭। শ্রীলঙ্কা ৮৫, ৮। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৬৫, ৯। বাংলাদেশ ৫৭।

You Might Also Like