তুরস্কে অবিলম্বে স্থিতিশীলতা চান ভ্লাদিমির পুতিন

তুরস্কের সাম্প্রতিক সামরিক অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার নিন্দা জানিয়ে দেশটিতে যতদ্রুত সম্ভব স্থিতিশীলতা ফিরে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি আজ (রোববার) তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে এ আশা ব্যক্ত করেন পুতিন।

তুরস্কে ‘সংবিধান বিরোধী তৎপরতা ও সহিংসতা’কে সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য উল্লেখ করে প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, তিনি তুরস্কে অনতিবিলম্বে সাংবিধানিক শাসনের প্রত্যাবর্তন ও স্থিতিশীলতা দেখতে চান। পুতিন-এরদোগান ফোনালাপের খবর জানিয়ে ক্রেমলিন এক বিবৃতিতে বলেছে, সেনা অভ্যুত্থানের প্রচেষ্টার সময় নিহত সরকারপন্থি সেনা ও বেসামরিক নাগরিকদের মৃত্যুতে শোক ও সমবেদনা জানান প্রেসিডেন্ট পুতিন।

ফোনালাপে শিগগিরই দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বসার আগ্রহ প্রকাশ করেন পুতিন ও এরদোগান। তুর্কি কর্মকর্তারা এর আগে বলেছিলেন, আগামী মাসে পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য রাশিয়ার অবকাশযাপন কেন্দ্র সুচিতে ছুটে যাবেন এরদোগান।

টেলিফোনালাপে তুরস্ক সফররত রুশ পর্যটকদের জীবন ও সম্পদ রক্ষার জন্য ‘প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা’ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট এরদোগান।

গত বছর সিরিয়া সীমান্তের কাছে তুর্কি বিমান বাহিনী একটি রুশ জঙ্গিবিমান গুলি করে ভূপাতিত করার পর দু’দেশের সম্পর্কে যে মারাত্মক অবনতি হয়েছিল সম্প্রতি তার অবসান ঘটাতে সম্মত হয় আঙ্কারা ও মস্কো। প্রেসিডেন্ট এরদোগান রুশ বিমান ভূপাতিত করার ঘটনায় ক্ষমা চাওয়ার পর তুরস্কের সঙ্গে সম্পর্ক আগের অবস্থায় ফিরিয়ে নিতে সম্মত হন প্রেসিডেন্ট পুতিন।

You Might Also Like