আজব গাড়ির আদলে জুতা

এখন সময় ডেস্কঃকাপড়ে মোড়ানো অদ্ভুত কনসেপ্টের গাড়ির অনুরূপ জুতা তৈরি করেছে পুমা। এ কাজে পুমাকে সহযোগিতা করেছে ডিজাইনওয়ার্ক।

ডিজাইনওয়ার্ক হলো ‘বিএমডব্লিউ’ গ্রুপের হায়ার ডিজাইন এজেন্সি। পুমা আর ডিজাইনওয়ার্কের যৌথ নির্মিত বিস্ময়কর এই প্রজেক্ট সম্পর্কে সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, গত ১ দশকের মধ্যে অদ্ভুত ধারণার খোলা ছাদের যে গাড়িটি তৈরি হয় তার গুণগানে আসছে এই জুতা।

বিএমডব্লিউর জিনা লাইট ভিশনারি মডেলটি ২০০৮ সালে জনসম্মুখে আনা হয়েছিল। একখণ্ড উজ্জ্বল সিলভার রঙের কাপড় দিয়ে এই রোডস্টারের পুরো অবয়ব টান টান করে ঢাকা। তবে আসলে সেখানে পাওয়া যাবে মেটালের তৈরি সব প্যানেল।

সত্যিকার গাড়ির বৈশিষ্ট্যগুলো তখনই প্রতীয়মান হয় এতে যখন এর উত্তাল দরজা খুলে যায় এবং সহজেই ভাঁজ হয়ে যায় কাপড়। আর হেডলাইট কাপড়ের পেছনে থাকায় তা সম্মুখে অদৃশ্য থাকে।

সম্পূর্ণ ভিন্ন ধরনের উদ্ভাবনটি কাউকে যদি বিস্মিত করে তবে সে কৃতিত্ব নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের। আর সেই ধারণায় পুনরায় প্রয়োগ করা হয়েছে এক্স-ক্যাট ডিস্ক। শুক্রবার (০১ জুলাই) এটি প্রকাশের কথা রয়েছে।

যদিও বলা হচ্ছে, এই জুতা সম্ভবত আমূল উদ্ভাবনমূলক কিছু হবে না।

অন্যান্য তথ্য মতে, জুতার নামের জগতে ডিস্ক নামটি এসেছে পুনামার ডিস্ক সিস্টেম থেকে। এই ডিস্ক সিস্টেমটি ব্যবহার হয়েছে জুতার ফিতার স্থানে। জিনার নমনীয়, কার্যকর এবং হালকা ম্যাটেরিয়ালের সঙ্গে ডিস্ক প্রযুক্তির সমন্বয় হয়েছে এতে। জুতার ফিতার পরিবর্তে বসানো ঘূর্ণির ডিস্কটি ভেতরকার তারগুলো টেনে নিয়ে জুতা খোলা ও বন্ধের কাজ করে।

এ পদ্ধতির জুতাটি পায়ে পড়লে চলাফেরায় গতিশীলতা এবং স্বাভাবিক অনুভুতি অনুভব হবে।

পুমার গ্লোবাল ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর বলেন, আমরা সম্ভবত সত্যিকার জিনার স্থানে এটি নিয়ে এসেছি। নতুন এই মেটেরিয়েল শুধু এর গঠনেই নয়, এটি ব্যবহারকারীদের চলাচলের ক্ষেত্রে বিভিন্ন পদ্ধতিতে কাজ করবে। আমরা চাই বিএমডব্লিউ এবং পুমার এক্স-ক্যাট প্রজেক্টর অভিনব শক্তিকে সবখানে ছড়িয়ে দিতে। সত্যিকারের গাড়ির আদল দিতে আধুনিক এবং অভিজাত এই জুতাকে সেভাবে রূপান্তর করেছি।

তাই যাদের আগ্রহে জিনা রয়েছে তাদের মন কাড়বে এটি।

বিএমডব্লিউর সঙ্গে পুমার এই সহযোগ নতুন নয়, ব্র্যান্ডটি বহুদিন ধরে বিএমডব্লিউর সঙ্গে কাজ করছে।

You Might Also Like