ইউরোপের পার্লামেন্টে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩ বাংলাদেশী প্রার্থী

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার এর কার্যক্রম শুরু হয়। আর এই নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ইউরোপের ৩টি দেশ থেকে প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩ জন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। এক্ষেত্রে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, ইংল্যান্ডের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় সুইন্ডন এলাকায় লেবার পার্টির প্রার্থী জুনাব আলী, সুইডেনের বামপন্থি দল ভ্যানস্টারপার্টিয়েট প্রার্থী লিও আহমেদ এবং ফিনল্যান্ডের বামপন্থি বাসেমিস্তো দলের প্রার্থী ফারুক আবু তাহের৷

এদিকে লন্ডনের বাংলাদেশি-অধ্যুষিত পৌর এলাকা টাওয়ার হ্যামলেটসের আরেক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রথম মেয়র লুৎফর রহমানের পুনঃনির্বাচনের লড়াইও শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার। এখানে এবারও লুৎফরের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী লেবার পার্টির জন বিগস।

ওদিকে বুধবার টাওয়ার হ্যামলেটসের এক বাংলাদেশি কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হিফজুর রহমানের মৃত্যুতে ঐ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে৷

আলাদা দিনে ভোট গ্রহণ চলছে যুক্তরাজ্যে। কারণ, স্থানীয় সরকার নির্বাচন৷ এদিন ইংল্যান্ডের ১৬১টি পৌর এলাকায় নির্বাচন হবে৷ তবে মূল দৃষ্টি লন্ডনের ৩২ টি কাউন্সিলের দিকেই। কেননা এসব এলাকায় লেবার ও কনজারভেটিভদের সাফল্য-ব্যর্থতার উপরই অনেকটা নির্ভর করছে আগামী বছরে অনুষ্ঠেয় সাধারণ নির্বাচনের ফলাফল।

নির্বাচনী ফলাফলের জনমত জরিপে এগিয়ে আছে উগ্র ডানপন্থি দল ইউকে ইনডিপেনডেন্স পার্টি (ইউকিপ)। তারপরের ধারাবাহিক অবস্থানে রয়েছে-লেবার দ্বিতীয়, ক্ষমতাসীন জোটের প্রধান শরিক কনজারভেটিভ তৃতীয় এবং লিবারেল ডেমোক্রেটরা চতুর্থ বা পঞ্চম অবস্থান পেতে পারে।

যুক্তরাজ্য, সুইডেন ও ফিনল্যান্ডে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৩ প্রার্থীর তাদের দলে অবস্থান অনেকটা ভালো। জুনাব আলী যুক্তরাজ্যের সুইন্ডন কাউন্সিলে পর পর দু’বার নির্বাচিত কাউন্সিলর৷ সুইডেনের লিও আহমেদও ২০১০ সাল থেকে তার পৌর এলাকায় কাউন্সিলর হিসেবে কাজ করছেন। ফিনল্যান্ডের ফারুক আবু তাহের সক্রিয়ভাবে ফিনিশ রাজনীতিতে অংশ নিচ্ছেন মাত্র কয়েক মাস ধরে৷ তবে তারা কেউ বাংলাদেশের প্রবাসী রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে যুক্ত নন বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ৭৫১টি আসনের মধ্যে ৭৩ টি আসন যুক্তরাজ্যের৷ যার ভোট গ্রহণ চলছে। আর বাকি ২৭টি সদস্যরাষ্ট্রের বেশিরভাগেরই ভোট গ্রহণ হবে ২৫ মে৷

You Might Also Like