খালেদা জিয়া ইফতার পার্টিতে গিয়ে মিথ্যা বলে যাচ্ছেন: শেখ হাসিনা

এখন সময় ডেস্কঃ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া রোজা-রমজানের দিন ইফতার পার্টিতে গিয়ে মিথ্যা ও অসত্য কথা বলে যাচ্ছেন।

আজ জাতীয় সংসদে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘রোজা রমজানের দিন আমরা ইফতার পার্টিতে গিয়ে আল্লাহ-রসূলের নাম নেই। আর তিনি প্রতিদিন ইফতার পার্টিতে গিয়ে নতুন নতুন গিবত গাওয়া, মানুষের বদনাম করা, মিথ্যা ও অসত্য কথা বলে যাচ্ছেন। আমি এর বেশি কিছু বলতে চাই না। জনগণই এর বিচার করবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশে কোনো সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের স্থান হবে না। বাংলাদেশের মাটি ব্যবহার করে কেউ অন্য কোথাও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাতে পারবে না। এ ব্যাপারে সরকার কঠোর অবস্থানে রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘কিছু কিছু ঘটনা ঘটেছে, সাথে সাথে এগুলোর তদন্ত করা, অপরাধীদের গ্রেফতার করা এবং তাদের বিচারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থা যথেষ্ট তৎপর রয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবচেয়ে দুঃখজনক ঘটনা হলো বিএনপি-জামায়াত যেভাবে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করেছে এর চেয়ে বড় সন্ত্রাসী কাজ আর কি হতে পারে।

তিনি বলেন, প্রকাশ্যে মানুষ হত্যা করে তারা যখন জনগণের রুদ্ররোষে শিকার হয়েছে তখন গুপ্তহত্যা করে তারা দেশে অস্থিতিশীল অবস্থা সৃষ্টি করতে চাচ্ছে।

শেখ হাসিনা ব্যাখ্যা করে বলেন, মাদারীপুরে একজন শিক্ষককে হত্যার উদ্দেশে যে আঘাত করেছে জনগণ সাহসের সাথে তাকে ধরে ফেলেছেন। তাকে নিয়ে অভিযানের সময় বন্দুকযুদ্ধে সে মারা যায়। যে লোকটা একজন কলেজ শিক্ষককে মারতে গিয়ে জনগণের কাছে হাতেনাতে ধরা পড়ে, তার জন্য খালেদা জিয়ার এতো মায়া-কান্না? এই একটা ঘটনা থেকেই বুঝা যায় যে গুপ্তহত্যার সাথে তার সম্পর্ক রয়েছে।’

ওদিকে, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া অভিযোগ করেছেন, অবৈধ হাসিনা সরকার ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে বিএনপিকে ধ্বংস করার টার্গেট করেছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইস্কাটনের লেডিস ক্লাব মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর বিএনপির ইফতার মাহফিলে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন বেগম জিয়া।

বেগম জিয়া বলেন, বাংলাদেশে গণতন্ত্র, সুশাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য এদেশের মানুষ মুক্তিযুদ্ধ করেছিল, কিন্তু দেশে আজ না আছে গণতন্ত্র, না ন্যায়বিচার, না আইনের শাসন। জনগণের জানমালের নিরাপত্তাও আজ চরম হুমকির মুখে। আজকে কারো জীবনই নিরাপদ নয়।

তাছাড়া, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেছেন,বর্তমান সরকার জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদ দমন করার পরিবর্তে বিএনপিসহ বিরোধী দল দমনেই ব্যস্ত রয়েছে বেশি। ফলে দেশে জঙ্গিবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে।

তিনি আরো বলেন, ‘মূলত দেশের অর্থনৈতিক ভঙ্গুর অবস্থা, লক্ষ লক্ষ কোটি টাকা পাচার হওয়া, বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ৮০০ কোটি টাকা লোপাট, গুম-খুন ও গুপ্তহত্যা- এসবের ভয়াবহতা থেকে জনদৃষ্টিকে ঝাপসা করতেই জঙ্গিবাদের সঙ্গে বিএনপিকে যুক্ত করার অপচেষ্টা করেছে বর্তমান সরকার।’

তবে, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত ও সরকারের অংশিদার জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ গতকাল জাতীয় সংসদে বলেছেন,দেশে ‘সুশাসন আজ গুলিবিদ্ধ’ । তিনি জাতীয় সংলাপের মাধ্যমে দেশকে কঠিন অবস্থা থেকে উদ্ধার করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আহ্বান জানিয়েছেন।

You Might Also Like