লক্ষ্মীপুরে শিশুকন্যাকে শ্বাসরোধে হত্যা: মা আটক

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দালাল বাজার ইউনিয়নের মহাদেবপুর এলাকায় ১০ মাসের কন্যা শিশুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে এক পাষণ্ড মা। ওই পাষণ্ড মায়ের নাম ইয়াছমিন আক্তার।

আজ রোববার ভোররাতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা ঘাতক মা ইয়াছমিন আক্তারকে আটক করে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে । পরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়। পুলিশ সকালে নিহত শিশু কন্যার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। নিহত শিশুর বাবার নাম আবুল খায়ের।

পুলিশ, শিশুটির স্বজন ও স্থানীয়রা জানায়, আবুল খায়েরের স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তার দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়ায় আসক্ত। এ নিয়ে স্বামী-আবুল খায়ের ও স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তারের মধ্যে প্রায় ঝগড়া বিরোধ লেগে থাকত। এর জের ধরে শনিবার রাতের কোন এক সময় শিশু কন্যাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ পুকুরে ফেলে দেয় মা ইয়াছমিন আক্তার। ভোররাতে মেয়েকে পায়না বলে চিৎকার দেয় সে। এ সময় আশপাশের লোকজন জড়ো হয়। পরে পাশের পুকুর থেকে শিশু কন্যা রাইসা আক্তারের লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। এদিকে মা ইয়াছমিন আক্তার জানান, ঘরের দু-পাশের দরজা খোলা ছিল। অন্য কেউ রাইসা আক্তারকে হত্যা করে লাশ পুকুরে ফেলে দিতে পারে। সে কেন তার মেয়েকে হত্যা করবে। এ ঘটনার সুষ্ঠ‍ু তদন্ত করার দাবি জানান তিনি। নিহতের দাদী কোরফুলি বেগম ও বাবা আবুল খায়ের জানান, রাইসা আক্তারকে মা নিজে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। তার স্বভাব ভালো নয়।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল্লাহ আল মামুন ভূঁইয়া জানান, শিশু কন্যার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘাতক মা ইয়াছমিন আক্তারকে আটক করা হয়েছে। পরকীয়ার কারণে শিশু কন্যাকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। তদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

You Might Also Like