মার্কিন মসজিদগুলোতে পুলিশের নজরদারি বাড়াতে হবে: ট্রাম্প

এখন সময় ডেস্কঃ রিপাবলিকান দলীয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প আবারও তার দেশের মসজিদগুলোর ওপর পুলিশের নজরদারি জোরদারের দাবি জানিয়েছেন।

গতকাল (বুধবার) ওরল্যান্ডো শহরের এক সমকামী ক্লাবে সাম্প্রতিক রহস্যজনক হত্যাযজ্ঞের প্রেক্ষাপটে আটলান্টা শহরে এক মিছিলে যোগ দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমাদের উচিত মসজিদগুলোতে তল্লাশি চালানো এবং অন্যান্য স্থানেও তল্লাশি চালাতে হবে। কারণ, এটা এমন এক সমস্যা যার সমাধান যদি আমরা না করি তাহলে তা আমাদের দেশকে খেয়ে ফেলবে।’

সমকামী ক্লাবে গুলি বর্ষণকারী ফ্লোরিডার ওই ব্যক্তি আমেরিকায় জন্ম নিলেও তার মা-বাবা এবং তার ধারণাগুলো আমেরিকায় জন্ম নেয়নি বলে ট্রাম্প মন্তব্য করেন।

এর আগেও ধনকুবের ট্রাম্প মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের প্রবেশ পুরোপুরি নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়ে বেশ কয়েকবার বক্তব্য রেখেছিলেন।

ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্রেট দলীয় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারী বলেছেন, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ট্রাম্পের বাগাড়ম্বর বা শ্লোগান আগের চেয়েও বেশি হঠকারি হয়ে উঠেছে।

চলতি সপ্তায় প্রখ্যাত রিপাবলিকান নেতারাও ট্রাম্পের মুসলিম-বিদ্বেষী বক্তব্য থেকে নিজেদের দূরে সরিয়ে নিয়েছেন।

মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষের স্পিকার পল রায়ান গত মঙ্গলবার বলেছেন, আমেরিকায় মুসলমানদের প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপকে এই দেশের স্বার্থের অনুকুল বলে তিনি মনে করেন না।

গত রোববার ওরল্যান্ডোর ওই সমকামী ক্লাবে আফগান বংশদ্ভুত এক মার্কিন নাগরিকের গুলি বর্ষণে ৪৯ জন নিহত এবং আহত হয় ৫৩ জন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে কোনো এক ব্যক্তির গুলি বর্ষণের ঘটনায় আর কখনও এত মানুষ হতাহত হয়নি। ওমর মাতিন নামের ওই বন্দুকধারী গুলি বর্ষণের সময় তাকফিরি-ওয়াহাবি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএসএল বা দায়েশের প্রতি আনুগত্য ঘোষণা করেছিলেন বলে মার্কিন পুলিশ জানিয়েছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, রিপাবলিকান দলীয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প এই ঘটনাকে মুসলিম অভিবাসী-বিরোধী তার পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কাজে লাগাচ্ছেন। তিনি এর আগে এক প্রস্তাবে বলেছিলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ অথবা মার্কিন সরকারের মিত্রদেশগুলোর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে জড়িত থাকার প্রমাণ রয়েছে যেসব দেশ বা অঞ্চলের লোকদের বিরুদ্ধে আমেরিকায় সেইসব দেশ বা অঞ্চলের লোকদের অভিবাসন স্থগিত রাখতে হবে যতক্ষণ না সন্ত্রাসের হুমকিগুলো মোকাবেলার উপায় পুরোপুরি বুঝতে পারা যায়।

You Might Also Like