রাজশাহীতে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, ৮ বাড়িতে আগুন

গাঁজা সেবনে বাধা দেয়া নিয়ে রাজশাহীর পুঠিয়ার দুই গ্রাম বাসিদের মধ্য তুমুল সংঘর্ষ হয়েছে, এসময় ৮টি বাড়িতে আগুনসহ বেশ কয়েকটি দোকান ভাংচুর চালানো হয়।

রোববার রাত পৌনে ৯টার পর থেকে ওই তা-ব চলে।

খবর পেয়ে পরে দমকল কর্মীরা গিয়ে আগুন নেভায়। আগুনে পুড়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান অন্তত ১০ লাখ টাকা। তবে এনিয়ে চলেছে ব্যাপক লুটপাট।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ফায়ার স্টেশনের পরিদর্শক এনায়েতুর রহমান বলেন, রাত ৮টার ৪৫ মিনিটে তারা অগ্নিকা-ের খবর পান। বিশ্ববিদ্যালয় ফায়ার স্টেশন ছাড়াও পুঠিয়া ফায়ার স্টেশনের দুটি ইউনিট দেড় ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নেভায়। আগুন লেগেছিলো আমকুমর গ্রামের চারটি পয়েন্টে। এতে সব মিলিয়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ৯ লাখ টাকা। এছাড়া উদ্ধার করা হয়েছে ১৫ লাখ টাকার মালামাল।

এদিকে, এ ঘটনায় রাতেই থানায় মামলা দায়ের করেছেন ক্ষতিগ্রক্ষ একগৃহকর্তা। ওই মামলায় দুজনকে গ্রেফতারও করেছে পুলিশ।

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মামলা দায়েরের পর রাতেই অভিযান চালিয়ে তারা ওই দুজনকে গ্রেফতার করেন। আইনত প্রক্রিয়া শেষে সোমবার দুপুরের দিকে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

বেলপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বদিউজ্জামান বলেন, জোত ভাগিরৎপুর গ্রামের গাঁজা সেবী কমল ও পাখি গ্রুপের লোকজন পাশের আমকুমর গ্রামের গোরস্তানের পাশে নিয়মিত গাঁজা সেবন করে আসছিলো। শনিবার বিকেলে আমকুমর এলাকার লোকজন গাঁজা সেবন করতে তাদের নিষেধ দেয় এনিয়ে কথা-কাটাকাটি হয় দুপক্ষের মধ্যে।

এরই জেরে রোববার সন্ধ্যায় আমকুমর এলাকায় হামলা চালায় ভাগিরৎপুর এলাকার লোকজন। এসময় ওই এলাকার আটটি বাড়িতে আগ্নিসংযোগ ও লুটপাট চালানো হয়। সংঘর্ষে অন্তত ১৫ জন আহত হন।

এর মধ্যে গুরুতর আহত ইউনুস আলী, জুবায়ের হোসেন, জাকির হোসেন ও তরিকুল ইসলামকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া, রিঙ্কু, মনজুয়ারা বেগম, নয়ন, শিহাব, বাবুসহ আরো ১০ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ও দমকল কর্মীরা গিয়ে আগুন নেভায়। এ ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

You Might Also Like