মেসির ব্যক্তিত্বই নেই: ম্যারাডোনা

বেশির ভাগ সময় আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসির প্রশংসাই করে এসেছেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা।

তিনি বলেছেন, ‘মেসি প্রতিভায় আমার চেয়েও এগিয়ে।’ তবে এবার তীব্র সমালোচনার হুল ফোটালেন ম্যারাডোনা। বললেন, মেসিকে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক বানানো হয়েছে বটে। তবে নেতা হওয়ার জন্য যে ব্যক্তিত্ব লাগে, সেটাই মেসির নেই।

ইউরোর উপলক্ষে বিশেষ একটি অনুষ্ঠানে ম্যারাডোনা আর পেলে এক হয়েছিলেন প্যারিসে। সেখানেই দুজনের আলাপচারিতার এক পর্যায়ে উঠে এসেছে মেসিকে নিয়ে তাঁর পূর্বসুরির ঝাঁজাল বাক্যবাণ।

পেলের এক প্রশ্নের জবাবে ম্যারাডোনা বলেন, ‘মেসি মানুষ হিসেবে ভালো। কিন্তু ওর কোনো ব্যক্তিত্ব নেই। নেতা হওয়ার জন্য যে চরিত্রটা দরকার, সেটাই ওর নেই।’

পেলের প্রত্যুত্তর, ‘হুম, বুঝতে পেরেছি। আমরা যেমন আমাদের সময় ছিলাম, ও আসলে সে রকম নয়। সত্তরের ব্রাজিলে আমাদের দলে ছিল রিভেলিনো, গারসন, টোস্টাও; অনেক ভালো খেলোয়াড়। এখনকার আর্জেন্টিনা দলটার মতো নয়, যে দল শুধু মেসির ওপর নির্ভর করে। ম্যারাডোনা যেটা বলছে, মেসি ভালো খেলোয়াড় তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তবে ওর কোনো ব্যক্তিত্ব নেই।’

ম্যারাডোনা সেই ব্যক্তিত্বের কথা বলছেন, যার গুণে নেতার জন্য দলের বাকিরা নিজেদের উজাড় করে দেয়। প্রাণ বাজি রেখে লড়াই করে। শেষ রক্তবিন্দুও ঢেলে দেয়। মেসি দলের বাকিদের সেই উজ্জীবিত করার কাজটাই করতে পারছেন না বলে মনে করেন ম্যারাডোনা।

ছিয়াশির মহানায়কের এই কথার সঙ্গে আর্জেন্টিনার অনেকেই একমত হবেন, নাও হতে পারেন। মেসি বেশির ভাগ সময়ই জাতীয় দলের হয়ে বিশেষ প্রয়োজনের সময় সেই জাদুকরী মুহূর্তগুলো দেখাতে পারেননি, ক্লাবের হয়ে যা তিনি অনেকবারই করেছেন। ২০১৪ ও ২০১৫ সালে টানা দুটি বড় টুর্নামেন্টে গিয়েও আর্জেন্টিনার দীর্ঘ শিরোপাখরাও ঘোচাতে ব্যর্থ হয়েছেন। ২০০৮ সালের বেইজিং অলিম্পিকে জেতা সোনা আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে মেসির এখন পর্যন্ত একমাত্র বড় অর্জন।

You Might Also Like