নাটোরে খ্রিস্টান দোকানিকে কুপিয়ে হত্যা, আইএসআইএলের দায় স্বীকার

এখন সময় ডেস্কঃনাটোরের বড়াইগ্রামে বৃদ্ধ এক খ্রিস্টান মুদি দোকানিকে কুপিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করেছে তাকফিরি সন্ত্রাসীগোষ্ঠী আইএসএইএল।

বিশ্বব্যাপী জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী বেসরকারি সংস্থা মার্কিন সংস্থা ‘সাইট ইন্টিলিজেন্স গ্রুপ’ আইএসআইএল’র সহযোগী সংবাদ সংস্থা ‘আমাক’-এর বিবৃতির বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে। খবরে বলা হয়, ‘বনপাড়ায় এক খ্রিস্টান এবং বান্দরবানে বৌদ্ধ ভিক্ষুকে হত্যা করেছে আইএসের সদস্যরা’।

আজ (রোববার) সকাল ৮টার দিকে বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া মিশন পল্লিতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মুদি দোকানি সুনীল গোমেজকে (৬০) কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, সুনীল গোমেজ বাসার সঙ্গে লাগোয়া মুদির দোককানে বসে ছিলেন। এসময় কয়েকজন দুর্বৃত্ত তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে চলে যায়। দোকানের টেবিলের ওপর উপুড় হয়ে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা তাঁকে বেসরকারি একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

এর আগে গত ১৪ মে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির চাকপাড়া বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ মং শৈ উ-কে গলা কেটে হত্যা করা হয়। হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টানদের উপর আরও কয়েকটি হামলায় আইএসের নামে দায় স্বীকারের খবর এলেও তা নাকচ করে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, দেশীয় জঙ্গিরা এগুলো ঘটিয়ে আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠীর নাম দিচ্ছে।

উত্তরাঞ্চলে এর আগে গত ২১ ফেব্রুয়ারি সকালে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে করতোয়া নদীর পশ্চিম পাড়ের সন্তগৌরীয় মঠের অধ্যক্ষ যজ্ঞেশ্বর রায়কে (৫০) গলা কেটে হত্যা করা হয়। এরপর ২২ মার্চ সকালে হাঁটাহাঁটি করতে বের হলে কুড়িগ্রাম পৌরসভার গাড়িয়ালপাড়ার ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলীকে তার বাড়ির কাছে তিন মোটরসাইকেল আরোহী গলা কেটে হত্যা করে।

You Might Also Like