ভারতের সাবেক রাজস্বমন্ত্রী একনাথের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের মামলা দায়ের করার দাবি

এখন সময় ডেস্কঃভারতের দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী তথা ‘আম আদমি পার্টি’র প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল মহারাষ্ট্রের সাবেক রাজস্বমন্ত্রী একনাথ খাডসের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের মামলা দায়ের করার দাবি জানিয়েছেন। আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে তার যোগাযোগ থাকার অভিযোগে কেজরিওয়াল ওই দাবি করেন।

আজ (রোববার) এক টুইটার বার্তায় অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, ‘গুজরাট সরকারকে হার্দিক প্যাটেলের ওপর থেকে দেশদ্রোহের অভিযোগ প্রত্যাহার করা উচিত। কারণ, তিনি দেশদ্রোহের দায়ে দোষী নন। খাডসে দেশদ্রোহী, তার বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের মামলা দায়ের করা হোক।’

অরবিন্দ কেজরিওয়াল গতকালও বিজেপি’র সাবেক মন্ত্রী একনাথ খাডসেকে দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে লিঙ্ক থাকার অভিযোগে তাকে বিশ্বাসঘাতক বলে অভিহিত করেন। মহারাষ্ট্রে বিজেপি-শিবসেনা জোট সরকারে সিনিয়র নেতা ছিলেন একনাথ খাডসে। দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ এবং অবৈধ ভূমি চুক্তিতে যোগ থাকার অভিযোগে বিরোধীদের প্রবল চাপের মুখে শনিবার ইস্তফা দিতে বাধ্য হন তিনি।

অরবিন্দ কেজরিওয়াল হার্দিক প্যাটেলের হয়ে সাফাই দিয়ে বলেন, ‘হার্দিক প্যাটেলের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের অভিযোগ দায়ের করা হলেও আসলে তিনি দেশের বিরুদ্ধে কিছুই করেননি। যদিও কল রেকর্ড সূত্রে প্রকাশ, ভারতের মোস্ট ওয়ান্টেড অপরাধীদের অন্যতম দাউদ ইব্রাহিম খাডসেকে ফোন করেছেন।’

আম আদমি পার্টির অভিযোগ, খাডসেকে ফোন করেছেন দাউদ ইব্রাহিম। যদিও ওই অভিযোগ শুধু খাডসেই নয়, মুম্বাই পুলিশও খারিজ করেছে।

কেজরিওয়াল বলেন, বিজেপি’র জন্য আসল পরীক্ষা তখনই হবে যখন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান এবং রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজেও ইস্তফা দেবেন।

অরবিন্দ কেজরিওয়াল গতকাল এক ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘মহারাষ্ট্রের এক মন্ত্রী খাডসে সাহেব। দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে তার কথোপকথনের কল রেকর্ড প্রকাশ্যে এসেছে। সুতরাং খাডসে দেশদ্রোহী, হার্দিক প্যাটেল নয়। সরকার খাডসের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ না নিয়ে হার্দিক প্যাটেলের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করছে। হার্দিক প্যেটেল দেশদ্রোহী হয় কী করে? দেশদ্রোহী তো খাডসের মতো নেতারা।’

বিজেপি শাসিত গুজরাটে প্যাটেল/পাটিদার সম্প্রদায়ের সংরক্ষণ আন্দোলনকে কেন্দ্র করে হার্দিক প্যাটেল যেরকম বিজেপি’র কাছে মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, তেমনই আম আদমি পার্টিও এবার বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ করবে বলে জানিয়েছে। তাই প্যাটেল আন্দোলনের জেরে জেলবন্দি হার্দিক প্যাটেলের পাশে খোলাখুলি দাঁড়িয়ে কার্যত বিজেপি’র রক্তচাপ বাড়িয়ে দিয়েছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

এরইমধ্যে দিল্লির আম আদমি পার্টির বিধায়ক গুলাব সিং যাদব ঘোষণা করেছেন আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে গুজরাটের ১৮২ আসনেই সবক’টিতেই প্রার্থী দেবে দল। ক্যডারদের সব আসনেই ছড়িয়ে দেয়ার কাজ চলছে। শুধু তাই নয়, গুজরাটে তারা ক্ষমতায় এলে বিদ্যুতের দাম ইউনিট প্রতি অর্ধেক করে দেবে বলে আগেভাগে ঘোষণাও দিয়েছে তারা। গুজরাটে তাদের এক লাখ সদস্য রয়েছে বলেও দলটির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

You Might Also Like