সেপটিক শকে মারা গেছেন মোহাম্মদ আলী

কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলীর পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, তাঁর মৃত্যু সেপটিক শক বা এমন একটি কারণে হয়েছে যার ফলে শরীরের রক্তের চাপ বিপদজনক মাত্রায় নেমে আসে।
কেনটাকির লুইসভিলে শুক্রবার তার নিজের শহরে শেষকৃত্য হবে বলে জানা গেছে।
মোহাম্মদ আলীর ইচ্ছানুযায়ী, ইসলামিক ঐতিহ্য মেনে শেষকৃত্য হলেও, তাতে সব ধর্মমতের ছাপ থাকবে বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন।
তিনবারের বিশ্ব হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন, ৭৪ বছর বয়সী মি. আলী অনেকদিন ধরেই অসুস্থতায় ভুগছিলেন। শনিবার তিনি অ্যারিজোনা রাজ্যের ফিনিক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
মোহাম্মদ আলীর পরিবারের একজন সদস্য জানিয়েছেন, নিজেকে একজন বৈশ্বিক নাগরিক হিসাবে মনে করতেন মি. আলী, তাই তিনি চাইতেন, তার শেষকৃত্যে সব ধর্মমতের মানুষ অংশ নেবে। মি. আলীর চাওয়া অনুযায়ী, শেষকৃত্যটি মুসলিম ঐতিহ্য অনুযায়ী হলেও, তাতে সব ধর্মের ছাপ থাকবে।
মি. আলীর স্ত্রীকে সমবেদনা জানিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, যেভাবে সারা বিশ্ব তাকে স্মরণ করছে, তাতেই তার বর্ণিল জীবন সম্পর্কে বোঝা যায়। মি. আলীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনও।

মুষ্টিযোদ্ধার ২১ বছরের ক্যারিয়ারে তিনি মোট ৬১টি লড়াইয়ে অংশ নিয়েছেন আর ৫৬টিতে জয় পেয়েছেন। তিনি তিনবার হেভি ওয়েট আর একবার লাই ওয়েট চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন।
কিভাবে মানুষ তাকে মনে রাখবে, এরকম এক প্রশ্নের জবাবে মি. আলী বলেছিলেন, একজন মানুষ হিসাবেই তাকে সবাই মনে রাখবে, যে তার আত্মাকে বিক্রি করেনি। তবে এটা যদি বেশি মনে হয়, তাহলে বরং একজন ভালো মুষ্টিযোদ্ধা হিসাবেই সবাই তাকে মনে রাখুক।
তারঁ জন্ম হয়েছিল ১৯৪২ সালের ১৭ই জানুয়ারি, ক্যাসিয়াস মার্সেলাস ক্লে হিসেবে কেনটাকি রাজ্যের লুইভিল শহরে।
ক্যসিয়াস ক্লে ১৯৬৪ সালে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে নাম বদলে রাখেন মুহাম্মদ আলী।
তিনি প্রথম সবার নজর কাড়েন ১৯৬০ সালে রোম অলিম্পিকসে।
সেখানে তিনি স্বর্ণপদক জয় করেন। -বিবিসি

You Might Also Like