নিউইয়র্কে বইমেলা ও বাংলা উৎসবের বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

নিউইয়র্কে তিনদিনব্যাপি বইমেলা ও বাংলা উৎসবের বর্ণাঢ্য উদ্বোধন হয়েছে গত শুক্রবার ২০ মে সন্ধ্যায়। দুই বাংলার লেখক-শিল্পী ও আগত দর্শক-শ্রোতাদের তুমুল করতালির মধ্যে জ্যাকসন হাইটসের ৩৭ এভিনিউ ও ৭৭ স্ট্রিটে পিএস ৬৯-এ ফিতা কেটে, বেলুন উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন করলেন বিশিষ্ট লেখক সেলিনা হোসেন। এর আগে ডাইভারসিটি প্লাজা থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে বাংলাদেশ-ভারত থেকে আসা লেখক-শিল্পী, প্রবাসীরা ঢোলের তালে তালে নেচে, গেয়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেন।
পিএস ৬৯-এ বইমেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট লেখক সেলিনা হোসেন, রোকেয়া হায়দার, রঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়, অরভিন ঘোষ, তাসমিমা হোসেন, রামেন্দু মজুমদার ইকবাল হাসান, কনসাল জেনারেল শামীম আহসান প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে এরপর মঞ্চে নৃত্য পরিবেশনা করে নৃত্যাঞ্জলি। নৃত্যানুষ্ঠান শেষে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় অবদান রাখায় সহ-মুক্তিযোদ্ধা আলবেনি মেডিকেল কলেজের প্রফেসর এমেরিটাস ড. ডেভিট নেলিনকে উত্তরীয় পরিয়ে সম্মাননা দেন রামেন্দু মজুমদার ও তাসমিমা হোসেন। প্রখ্যাত শিল্পী ফেরদৌস আরার গানের মধ্য দিয়ে শেষ হয় প্রথম দিনের আয়োজন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে মেলার আহ্বায়ক হাসান ফেরদৌস, উপদেষ্টা জামালউদ্দিন হোসেন, ড. নুরন নবী, ফাহিম রেজা নূর, আব্দুর রহিম বাদশাহ, সাপ্তাহিক আজকালের প্রধান সম্পাদক ও জেবিবিএ প্রেসিডেন্ট জাকারিয়া মাসুদ জিকো উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন সেমন্তী ওয়াহেদ।
ওদিকে বইমেলার রজতজয়ন্তী উপলক্ষ্যে পদরাচরণায় এখন মুখরিত নিউয়র্কের বাংলাদেশী অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটস এলাকা। এখানকার বিভিন্ন স্ট্রিটে, রেস্টুরেন্টের চায়ের টেবিলে কিংবা বাউল দাদার ঝালমুড়ির আড্ডায় এখন আগত লেখক-শিল্পীরা প্রবাসীদের সাথে মিলেমিশে একাকার।
মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের আয়োজনে বাংলাদেশ ও পশ্চিম বাংলার বাইরে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির বৃহত্তম অনুষ্ঠান তিনদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক বাংলা উৎসব ও বইমেলা উপলক্ষে জ্যাকসন হাইটস এলাকায় সাজ সাজ রব। নিউইয়র্ক ছাড়াও আমেরিকার বিভিন্ন স্টেট এবং কানাডা থেকেও কবি সাহিত্যিক ও সাহিত্যানুরাগিরা যোগ দিয়েছেন এ মেলায়।
ওদিকে এ বছর বইমেলায় প্রথমবারের মতো প্রবর্তন করা হচ্ছে সাহিত্য পুরস্কার। বাংলাদেশের বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন ‘চ্যানেল আই’-এর আর্থিক সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠিত এই পুরস্কারের নাম ‘মুক্তধারা-চ্যানেল আই সাহিত্য পুরস্কার’। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে সার্বিক অবদানের জন্য একজন লেখক এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হবেন। এবারের বইমেলার আহ্বায়ক বিশিষ্ট লেখক ও কলামিস্ট হাসান ফেরদৌস এবং আয়োজক মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট লেখক ও সাংবাদিক বিশ্বজিত সাহা ‘আজকাল’কে জানান, পুরস্কারের জন্য ১৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি কয়েকদফা সভা করে কয়েকজনের নাম নির্বাচন করেছেন। শুক্রবার গোপন ভোটের মাধ্যমে একজনকে এই পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করবে কমিটি। মেলার শেষ দিন ২৩ মে ‘মুক্তধারা-চ্যানেল আই সাহিত্য পুরস্কার’ ঘোষিত হবে। পুরস্কারের মূল্যমান দুই লাখ টাকা। এবার মেলায় অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন প্রকাশনা সংস্থার মধ্যেও সেরা বইয়ের স্টলের জন্য একটি পুরস্কার দেওয়া হবে বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।
নিউইয়র্ক বইমেলার রজতজয়ন্তীর এ উৎসবে যোগ দিচ্ছেন দুই বাংলার বিশিষ্ট লেখকদের মধ্যে ভারতীয় সাহিত্যিক রঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়, কবি বীথি চট্টোপাধ্যায়, বাংলাদেশ থেকে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক, নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, চ্যানেল আই-এর প্রধান নির্বাহী, বিশিষ্ট লেখক ফরিদুর রেজা সাগর, ইত্তেফাক পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, কবি সৈয়দ আল ফারুক, ছড়াকার আমীরুল ইসলাম, শব্দঘর পত্রিকার সম্পাদক ও লেখক মোহিত কামাল, কবি গুলতেকিন খান প্রমুখ। শিল্পীদের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে এসেছেন বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী ফেরদৌস আরা, সুজিত মোস্তফা, পশ্চিমবঙ্গ থেকে রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী কমলিনী মুখোপাধ্যায় ও লন্ডন থেকে শিল্পী নাহিদ নাজিয়া।
কলকাতার লেখকদের মধ্যে টেকনো ইন্ডিয়ার প্রধান নির্বাহী ও লেখক সত্যম রায় চৌধুরী এবং প্রকাশক ও লেখক ত্রিদিব কুমার চ্যাটার্জিও বইমেলায় অতিথি হিসেবে যোগ দিচ্ছেন। জার্মানী থেকে এসেছেন নাজমুন নেসা পিয়ারী। কানাডা থেকে যোগ দিচ্ছেন বিশিষ্ট ছড়াকার লুৎফুর রহমান রিটন, কবি ইকবাল হাসান, সালমা বাণী, মুস্তফা চৌধুরী, মাহফুজুল বারী, জসিম মল্লিক, কণ্ঠশিল্পী শিখা আহমদ, ফারহানা শান্তা, শেখর গোমেজ প্রমুখ।
ইতিমধ্যে বাংলাদেশের প্রকাশকদের মধ্যে মাওলা ব্রাদার্সের আহমেদ মাহমুদুল হক, সময় প্রকাশনের ফরিদ আহমেদ, অনন্যার মো. মনিরুল হক, স্টুডেন্ট ওয়েজের মাশফিক উল্লাহ, নালন্দার রেদওয়ানুর রহমান, কথাপ্রকাশের মোহাম্মদ জসিমউদ্দীন, ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশের জহিরুল আবেদীন, স¤্রাজ্ঞী প্রকাশনার সুলতানা রিজিয়া, প্রিতম প্রকাশের পপি চৌধুরী, ধ্রুবপদের আবুল বাশার ফিরোজ শেখ নিউইয়র্কে এসে পৌঁছেছেন।
এদিকে, বইমেলায় আগত লেখক-শিল্পীদের নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জ্যাকসন হাইটসের একটি রেস্টুরেন্টে জমাট আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়। এতে নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত বিভিন্ন পত্রিকার সম্পাদকেরা উপস্থিত ছিলেন।

You Might Also Like