মার্সেল ক্লাব কাপ হকি-২০১৬ : আবাহনীর শিরোপা জয়

রোববার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে উষা ক্রীড়া চক্র ও আবাহনী লিমিটেডের মধ্যকার ফাইনাল ম্যাচ দিয়ে পর্দা নামল মার্সেল ক্লাব কাপ হকির। ফাইনালে উষাকে ৫-১ গোলে হারিয়ে মার্সেল ক্লাব কাপ হকির চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আবাহনী লিমিটেড।

সবশেষ তারা ২০০৮ সালে ক্লাব কাপ হকির শিরোপা জিতেছিল। ৮ বছর পর তারা জিতে নিল মার্সেল ক্লাব কাপ হকির শিরোপা।

প্রথমার্ধে আবাহনী ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে ছিল। দ্বিতীয়ার্ধে তারা আরো দুটি গোল করে। উষা ক্রীড়া চক্র যেভাবে গ্রুপপর্ব ও সেমিফাইনালে খেলে এসেছে ঠিক সেই খেলাটা তারা আজ খেলতে পারেনি। ফলে শিরোপা জেতাও হয়নি তাদের।

ফাইনালে আবাহনীর পক্ষে মো. তসিফ আরশাদ ১৬ ও ৫৬ মিনিটে দুটি গোল করেন। মো. ইরফান ২৭ মিনিটে ১টি ফিল্ড গোল করেন। শাকিল আব্বাস ৪১ মিনিটে ১টি ফিল্ড গোল করেন। আর শাফকাত রসুল ৪৯ মিনিটে করেন ১টি ফিল্ড গোল। অন্যদিকে উষা ক্রীড়া চক্রের পক্ষে ফাইজাল বিন শারি ৭মিনিটে একটি গোল করেন।

মার্সেল ক্লাব কাপ হকির চ্যাম্পিয়ন দল আবাহনী ট্রফি ও ৭০ হাজার টাকা প্রাইজমানি পায়। আর রানারআপ দল উষা ক্রীড়া চক্র ট্রফি ও ৩৫ হাজার টাকা প্রাইজমানি পায়। এ ছাড়া টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা আবাহনীর মাকসুদ আলম ও সেরা খেলোয়াড় লোকমান সরকারকে মার্সেল এর পক্ষ থেকে হোম অ্যাপ্লায়েন্স দিয়ে উৎসাহিত করা হয়। লিগের ফেয়ার প্লে অ্যাওয়ার্ড পায় সোনালী ব্যাংক এসআরসি।

ফাইনাল শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ দলের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সভাপতি বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল আবু এসরার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের সিনিয়র এডিশনাল ডিরেক্টর এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), মিডিয়া পার্টনার এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সহ-সভাপতি খাজা রহমতউল্লাহ।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে হকি ফেডারেশনের সভাপতি আাবু এসরার বলেন, ‘এই টুর্নামেন্ট সাফল্যমণ্ডিত করার জন্য আমি ধন্যবাদ দিতে চাই পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপ, মিডিয়া পাটর্পনার এটিএন বাংলাসহ এই প্রতিযোগিতার আয়োজক ও এর সঙ্গে জড়িত সবাইকে। তাদের কন্ট্রিবিউশনের কারণে এই মার্সেল ক্লাব কাপ হকি সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে। আমরা হকিতে প্রাণ ফিরিয়ে এনেছি। নিয়মিত মাঠে খেলা রাখছি। হকিতে প্রাণ ফিরিয়ে আনার জন্য সংশ্লিষ্ট ক্লাব এবং অন্যান্য সকলকে ধন্যবাদ দিতে চাই। আপনারা একইভাবে প্রিমিয়ার লিগ হকিতেও কন্ট্রিবিউট করবেন। তাহলে আমাদের হকি আরো এগিয়ে যাবে। হকি থেকে ভালো খেলোয়াড় পাব এবং ভবিষ্যতে বিশ্বকাপে খেলতে পারব।’

এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার বলেন, ‘সুষ্ঠভাবে মার্সেল ক্লাব কাপ হকি সম্পন্ন হওয়ায় এর সঙ্গে জড়িত সকলকে ধন্যবাদ দিতে চাই। ধন্যবাদ দিতে চাই বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনকে, মিডিয়া পার্টনার এটিএন বাংলাকে। যাদের কারণে মার্সেল ক্লাব কাপ হকির ফাইনাল ম্যাচটি সারা বিশ্বের মানুষ সরাসরি দেখতে পেয়েছে। ধন্যবাদ দিতে চাই মার্সেল ক্লাব কাপ হকি টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া সকল ক্লাবকে। অভিনন্দন জানাই চ্যাম্পিয়ন আবাহনী দলকে। অভিনন্দন জানাই রানার আপ দল উষা ক্রীড়া চক্রকেও। উভয় দল দারুণ নৈপূণ্য প্রদর্শন করেছে। আমরা ওয়ালটন গ্রুপ আগেও হকির পাশে ছিলাম। এবারও হকির সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছি। ইনশাল্লা ভবিষ্যতেও সম্পৃক্ত হওয়ার চেষ্টা করব।’

এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘এটিএন বাংলা হকির সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে কাজ করে যাচ্ছে। আমি নিজেও হকির সঙ্গে জড়িত। ব্যক্তিগতভাবে আমি আশাবাদী ২০২২ সালে বাংলাদেশ হকি দল বিশ্বকাপে খেলবে। শুধু আমি নই, হকির সঙ্গে জড়িত সবাই চায় বাংলাদেশ বিশ্বকাপে খেলুক। স্কুল হকির মধ্যমে তরুণ খেলোয়াড়দের উঠিয়ে আনছি আমরা। তাদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছি। এখান থেকে ভালো খেলোয়াড় বাছাই করে বিশ্বকাপ খেলব। আমি পৃষ্ঠপোষক মার্সেল ও এই টুর্নামেন্টের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই।’

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সহ-সভাপতি খাজা রহমতউল্লাহ বলেন, ‘মার্সেল ক্লাব কাপ হকির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই। বিশেষ করে ধন্যবাদ জানাই পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপকে, এই প্রতিযোগিতায় পৃষ্ঠপোষকতা করার জন্য। ধন্যবাদ জানাই মিডিয়া পার্টনার এটিএন বাংলাকে। আশা করছি ভবিষ্যতেও সকলকে আমরা পাশে পাব।’

উল্লেখ্য, এবারের এই মার্সেল ক্লাব কাপ হকি টুর্নামেন্টে ৯টি দল অংশ নেয়। ৯টি দলকে দুটি গ্রুপে বিভক্ত করে লিগ পদ্ধতিতে খেলা অনুষ্ঠিত হয়। মার্সেল ক্লাব কাপ হকির ‘ক’ গ্রুপে ছিল উষা ক্রীড়া চক্র, ঢাকা মেরিনার ইয়াংস ক্লাব, সাধারণ বীমা কেএস ও এ্যাজাক্স এসসি। ‘খ’ গ্রুপে ছিল- আবাহনী এসসি লিমিটেড, মোহামেডান এসসি লিমিটেড, সোনালী ব্যাংক এসআরসি, বাংলাদেশ এসসি ও ওয়ারী ক্লাব।

এই প্রতিযোগিতার অনলাইন পার্টনার ছিল দেশের অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল রাইজিংবিডি.কম। আর মিডিয়া পার্টনার ছিল এটিএন বাংলা।

You Might Also Like