পটুয়াখালীতে দেবর-ভাবী খুন

পটুয়াখালীতে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে  দেবর রুস্তম আলী মাঝি ও ভাবী মোসা. মালেকা বেগমকে (৪৫) কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। বৃহস্পতিবার সদর উপজেলার লোহালিয়া ইউনিয়নের কুড়িপাইকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হত্যার অভিযোগে পুলিশ হাফেজ মুন্সি ও রাবেয়াকে আটক করেছে।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে বিরোধপূর্ণ জমিতে গাছ লাগাতে যায় রুস্তম আলীর প্রতিপক্ষ মৃত ধলু মুন্সির ছেলে হাফেজ মুন্সি, ওহাফ মুন্সি, জসিম মুন্সি ও রাজ্জাক মুন্সি গংরা। রুস্তম আলী ও তার ভাবী মালেকা গাছ লাগাতে বাধা দিলে প্রতিপক্ষরা তাদের কুপিয়ে জখম করেন। এ সময়  রুস্তম আলীর সন্তান সেলিনা বেগম ও আফজাল তাদের বাবাকে রক্ষা করতে এসে তারাও হামলার শিকার হন। পরে পরিবারের অন্য সদস্য এবং স্থানীয়রা আহত চারজনকে উদ্ধার করে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রুস্তম আলী ও তার ভাবী মালেকার অবস্থার আশঙ্কাজনক হলে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। কিন্তু বরিশাল নেওয়ার পথে আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে তারা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

পটুয়াখালী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল বাসার জানান, হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে হাফেজ মুন্সি ও রাবেয়া নামে দুজনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ মৃতদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনা মামলার প্রস্তুতি হচ্ছে এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে।

You Might Also Like