বাংলাদেশের জরিমানা হলে ভারতের নয় কেন?

কত কিছুই না হচ্ছে বাংলাদেশ টিমকে নিয়ে। যত অপরাধ যেন টাইগারদেরই। তাইতো আইসিসির এমন বৈষম্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে কোটি কোটি ক্রিকেটপ্রেমীরা। কি রাজপথে, কি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
এইতো তাসকিন বিতর্ক শেষ না হতেই আরেক প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে ক্রিকেটের সর্বো”চ সংস্থাটি। ভারতের বিপক্ষের খেলায় ধীরগতির বোলিংয়ের কারণ দেখিয়ে জরিমানা করা হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে। অথচ ম্যাচ চলাকালীন সময়ে জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোর ধারাভাষ্যে লেখা হয়েছিল, ‘নির্ধারিত ওভার-রেটের চেয়ে অনেক পিছিয়ে আছে ভারত।’
তাই স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে ধীরগতির বোলিংয়ের কারণে মাশরাফিদের যদি জরিমানা হয়, তাহলে ভারতের হবে না কেন? বুধবার বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচ শুরু হয়েছিল রাত ৮টায়। এ দিন শুরুতে ব্যাটিং করা ভারতের ইনিংস শেষ হয়েছিল পৌনে ১০টায়। আর এটাকে আইসিসি বিবেচনা করেছে ওভার রেট সংক্রান্ত ছোট অপরাধ হিসেবে।
এরপর ১৫ মিনিটের বিরতি শেষে বাংলাদেশের ইনিংস শুরু হয়েছিল রাত ১০টায়। হিসেব অনুযায়ী, রাত সাড়ে ১১টায় শেষ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের ইনিংস। কিন্তু ম্যাচটি গড়িয়েছিল ১১টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। কারণ শেষ ওভারে বেশ কয়েকবার বোলার পান্ডের সঙ্গে কথা বলতে দেখা গিয়েছিল অধিনায়ক ধোনি, আশিস নেহরা, বিরাট কোহলিদের। আর এ সময়েই ক্রিকইনফোর ধারাভাষ্যে লেখা হয়েছিল ওই মন্তব্যটি।
তারপরও ম্যাচ শেষে শুধু বাংলাদেশকেই গুনতে হলো ওভার রেট-সংক্রান্ত জরিমানা! তাই প্রশ্নই থেকে যায় আইসিসির নিরপেক্ষতা আর বিশ্বস্ততা নিয়ে।

You Might Also Like