বাকডাইস ও আবদীন ব্রাদার্স ফুটবল লীগ’ ২০১৪

বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিল অব আমেরিকা আয়োজিত চলতি বাকডাইস ও আবদীন ব্রাদার্স ফুটবল লীগ’২০১৪-এর তৃতীয় সপ্তাহের খেলায় কানেকটিকাট ও যুব সংঘের জয়লাভ। অপরদিকে সোনার বাংলা ও নিউজার্সী পয়েন্ট ভাগাভাগী করেছে। খেলায় যুব সংঘের ফারহান হ্যাট্রিক করার গৌরব অর্জন করেন। এটি ছিলো লীগের দ্বিতীয় হ্যাট্ট্রিক। ইতিপূর্বে লীগের উদ্বোধনী দিনে আইসাব-এর মহিবুল প্রথম হ্যাট্রিক করেন। লীগের তৃতীয় সপ্তাহের চারটি খেলা অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম খেলায় কানেকটিকাট ও আইসাব, দ্বিতীয় খেলায় যুব সংঘ ও ইউনাইটেড, তৃতীয় খেলায় সোনার বাংলা ও নিউজার্সী এবং চতুর্থ খেলায় ব্রঙ্কস স্টার ও ব্রাদার্স এলায়েন্স একে অপরের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। এদিন কানেকটিকাটের কাছে আইসাব-এর পরাজয় ছিলো বড় অঘটন। এদিকে সোনার বাংলা ও নিউজার্সীর মধ্যকার খেলায় হট্টগোলে ফলে সোনার বাংলা’র খেলোয়ারকে উজ্জলকে পরবর্তী খেলার জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে।
দিনের প্রথম খেলায় কানেকটিকাট অঙ্গরাজ্যের স্ট্যামফোর্ড ইউনাইটেড ১-০ গোলে আইসাব-কে পরাজিত করে। এই খেলায় আক্রমন পাল্টা আক্রমন থাকলেও ছিলো না কোন উত্তেজনা। তাছাড়া আইসাবের তারকা স্ট্রাইকার মিলাদের খেলা দর্শকদের হতাশ করেছে। জ্বলে উঠতে পারেননি গতবারের লীগের সেরা গোলদাতা মিলাদ। খেলার ৩১ মিনিটের সময় কানেকটিকাটের পক্ষে শওকত একমাত্র জয়সূচক গোলটি করেন।
দিনের দ্বিতীয় খেলায় লীগের দুই শক্তিশালী দল যুব সংঘ ও ব্রঙ্কস ইউনাইটেড একে অপরের সাথে মোকাবেলা করে। আক্রমন পাল্টা আক্রমনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত খেলাটি ছিলো উপভোগ্য। খেলার ১০ মিনিটের সময় যুব সংঘের স্ট্রাইকার সাহেল প্রথম গোল করে দলকে এগিয়ে নিয়ে যান (১-০)। ডি বক্সের মধ্যকার জটলা থেকে গোলটি হয়। এরপর খেলার ১০ মিনিটের সময় ব্রঙ্কস ইউনাইটেড-এর সামি ডি বক্স থেকে চমৎকার শটে দলে পক্ষে প্রথম গোল করে খেলায় সমতা ফিরিয়ে আনেন (১-১)। এর আগে খেলায় অখেলোয়ারী মনোভাবের অভিযোগে ব্রঙ্কস ইউনাইটেডের সানিকে লাল কার্ড প্রদর্শন করা হয়। খেলার ২১ মিনিটের মাথায় যুব সংঘের ফারহান তার দর্শনীয় শটে গোল করে দলকে এগিয়ে নিয়ে যান (২-১)। এরপর চলে আবারও আক্রমণ পাল্টা আক্রমণ। খেলার ৪২ মিনিটের সময় যুব সংঘের পক্ষে ফারহান তৃতীয় গোল করে দলকে আরো এগিয়ে নিয়ে যান (৩-১)। খেলার ৮৪ মিনিটের সময় একটি ফাউল থেকে ফ্রি কিক পেয়ে দলের পক্ষে চতুর্থ গোল এবং নিজের হ্যাট্রিক পূর্ণ করেন (৪-১)। খেলার শেষ মূহুর্তে গোলপোস্টের সামনে জটলা থেকে চোখ ধাঁধানো শটে গোল করলেও শেষ পর্যন্ত ব্রঙ্কস ইউনাইটেড-কে ৪-২ গোলে পরাজিত হয়ে মাঠ ছাড়তে হয়। সেই সাথে পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে ঘরে ফিরে যুব সংঘ।
দিনের তৃতীয় খেলায় সোনার বাংলা ও নিউজার্সী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। খেলাটি ১-১ গোলে ড্র হয়। এই খেলায় ছিলো আক্রমন, পাল্টা আক্রমন। আরো ছিলো উত্তেজনা। খেলার ১৯ মিনিটের সময় নাসিরের দেয়া গোলে নিউজার্সী ১-০ গোলে এগিয়ে যায়। খেলা শেষ হওয়ার আগ মূহুর্তে সোনার বাংলা’র রাহি গোল করে খেলায় সমতা (১-১) ফিরিয়ে আনেন। শেষ পর্যন্ত খেলাটি ড্র হওয়ায় উভয় দলকে পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয়। এদিকে একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে মাঠে হট্টগোলের জন্য কিছুটা সময় খেলাটি স্থগিত থাকে। সোনার বাংলা দলের ২৪ নম্বর জার্সীধারী খেলোয়ার উজ্জল সাইড লাইন থেকে মাঠের ভিতরে প্রবেশ করে নিয়ম অমান্যের অভিযোগে তাকে আগামী এক খেলার জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে। লীগের তৃতীয় দিনের খেলা শেষে স্পোর্টস কাউন্সিলের তাৎক্ষনিক বৈঠকে ফুটবলার উজ্জলের বিরুদ্ধে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে কাউন্সিলের সভাপতি মহিউদ্দিন দেওয়ান ইউএনএ-কে জানান।
দিনের চতুর্থ ও শেষ খেলায় ব্রঙ্কস স্টার ১-০ গোলে ব্রাদার্স এলায়েন্সকে পরাজিত করে। খেলার প্রথমার্ধের ১০ মিনিটের মাথায় ব্রাদার্সের পক্ষে অয়ন জয়সূচক গোলটি করেন। অবশ্য ব্রাদার্স এলায়েন্স গোল পরিশোধের জন্য একাধিকবার প্রচেষ্টা চালালেও তা ব্যর্থ হয়ে যায়। অপরদিকে ব্রঙ্কস স্টার তাদের জয় ধরে রাখতে পাল্টা আক্রমন অব্যহত রাখে। শেষ পর্যন্ত খেলাটি ১-০ গোলে শেষ হয়।
কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি কামাল আহমেদ, কোষাধ্যক্ষ রুহুল আমীন সিদ্দিক প্রমুখ লীগের খেলা উপভোগ করেন। এছাড়া স্পোর্টস কাউন্সিলের কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও উপদেষ্টা মনজুর আহমেদ চৌধুরী, প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও উপদেষ্টা আব্দুর রহীম বাদশাসহ সভাপতি মহিউদ্দিন দেওয়ান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাসিত খান বুলবুল, আনোয়ার হোসেন, ওয়াহিদ কাজী এলিন, জাকির হোসেন, আবু তাহির আসাদ, জুয়েল আহমেদ প্রমুখ মাঠে উপস্থিত ছিলেন।

You Might Also Like