আইএস যুক্তরাষ্ট্রের জন্য হুমকি: পেন্টাগন

লিবিয়ায় শেকড় গেড়ে বসা আইএসরা যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলোর স্বার্থের জন্য বিরাট হুমকি হয়ে দেখা দিয়েছে।

পেন্টাগনের এক বিবৃতিতে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়। সম্প্রতি লিবিয়ায় আইএসের আস্তানায় মার্কিন বিমান হামলার পর মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর এ কথা জানান। ত্রিপোলি থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে সাবরাথা শহরে আইএস ঘাঁটিতে চালানো ওই হামলায় অন্তত ৪০ জন আইএস নিহত হয়। এর মধ্যে তিউনিসীয় উগ্রপন্থী নেতা নূরউদ্দিন চৌচান রয়েছেন।

এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়, উত্তর আফ্রিকার তেলসমৃদ্ধ দেশটিতে গত তিন মাসে এটি আইএসের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় বিমান হামলা।

২০১১ সালে মুয়াম্মার গাদ্দাফির উৎখাতের পর লিবিয়ায় সৃষ্ট বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সুযোগে জঙ্গি ইসলামপন্থী সুন্নি সংগঠনটি সেখানে অবস্থান গড়ে তোলার চেষ্টা করছে। যুক্তরাষ্ট্র জানায়, সেখানে এক বছরের বেশি সময় ধরে আইএস আস্তানা গেড়েছে। লিবিয়ায় তাদের ছয় হাজারের বেশি জঙ্গি রয়েছে।

পেন্টাগনের মুখপাত্র পিটার কুক বলেন, লিবিয়ার কর্তৃপক্ষকে জানিয়েই এ হামলা চালানো হয়েছে। তবে কাকে জানানো হয়েছে, তা তিনি নিশ্চিত করেননি।

কুক বলেন, ‘নূরউদ্দিন ও আইএসরা যুক্তরাষ্ট্র ও এই অঞ্চলে পশ্চিমা স্বার্থগুলোর ওপর হামলা চালানোর ষড়যন্ত্র করছিল।

এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েই জঙ্গিদের সেই প্রশিক্ষণ শিবিরে হামলা চালানো হয়।’

তিনি বলেন, ‘ইরাক ও সিরিয়ায় কী ঘটছে, তা আমরা দেখছি। আমাদের ধারণা, লিবিয়ার এই আইএসরা আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা স্বার্থের জন্য হুমকি।’

You Might Also Like