সঙ্গমরত অবস্থায় বৃদ্ধের মৃত্যু, অতঃপর…

যৌনকর্মীর সঙ্গে সঙ্গম করতে গিয়ে প্রাণ গেল চিনের এক পেনশনভোগী বৃদ্ধের। মৃত্যুর পর বৃদ্ধকে ওই নারীর শরীর থেকে আলাদা করতে না পারায় তাদেরকে একসঙ্গেই হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

চাকরি থেকে অবসর নিয়ে জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত উপভোগ করতে চেয়েছিলেন চিনের বাসিন্দা ওই বৃদ্ধ। এক রাতে তাই যৌনকর্মীর সঙ্গে নিজের আবাসনে শরীরী খেলায় মেতেছিলেন। কিন্তু চরম অনুভূতির সময় হঠাত্‍ তাঁর হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে পড়ে। সঙ্গমরত অবস্থায় মারা যান বৃদ্ধ। কিন্তু বৃদ্ধের মৃত্যুর পর ওই যৌনকর্মী তার শরীর বৃদ্ধের শরীর থেকে আলাদা করতে পারছিলেন না।

গ্রাহকের আচমকা মৃত্যুতে স্বভাবতই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ওই যৌনকর্মী। সাহায্য চেয়ে ফোন করলে বাড়িতে ছুটে আসেন জরুরি চিকিত্‍সা বিভাগের কর্মীরা। কিন্তু চেষ্টা করেও তারা দু’জনকে আলাদা করতে পারেননি। বাধ্য হয়ে জীবিত ও মৃত যুগলকে একসঙ্গেই অ্যাম্বুলেন্সে চাপিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। নীল চাদরে ঢেকে জীবিত ও মৃতের অদ্ভুত জুটিকে তত্‍পরতার সঙ্গে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিত্‍সকদের চেষ্টায় অবশেষে অপারেশনের মাধ্যমে তাদেরকে আলাদা করা হয়।

চিকিত্‍সকরা জানিয়েছেন, সাধারণত কুকুর এবং অন্য পশুদের মধ্যে এমন ঘটনা অহরহ ঘটলেও মানুষের ক্ষেত্রে তা বিরল। এই শারীরিক জটিলতাকে চিকিত্‍সার ভাষায় ‘পেনিস ক্যাপটিভাস’ বলা হয়। তবে সাধারণত এমন পরিস্থিতি কয়েক সেকেন্ড স্থায়ী হয়।

চিনের ওই বৃদ্ধের ক্ষেত্রে অবশ্য জটিল শারীরিক পরিস্থিতি দীর্ঘস্থায়ী হয়েছিল। নিজেকে যৌনসঙ্গীর থেকে বিচ্ছিন্ন করার আগেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়।

এদিকে হাসপাতালে মৃতের দেহের উপর সেঁটে থাকা যৌনকর্মীর ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গে তা ভাইরাল হয়ে গেছে। চিনের ভিডিও শেয়ারিং সাইট মিয়াওপাই-এর মাধ্যমে প্রথম দফায় ১,৩৭,০০০ জন ভিডিওটি দেখেছেন বলে জানা গেছে।

You Might Also Like