দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে মোদির সাক্ষাত

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে গুরুত্বর এক অভিযোগ এনেছেন উত্তর প্রদেশের সিনিয়র এক মন্ত্রী আজম খান। তিনি বলেছেন, আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন মোদি। বড়দিনে পাকিস্তান সফর করেন নরেন্দ্র মোদি। তখন পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বাসভবনে ওই সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হয়। তবে আজম খানের এ অভিযোগ সরকার মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা পিটিআই। আজম খানের ওই বক্তব্যের জবাবে সরকারি এক মুখপাত্র বলেন, বিভিন্ন প্রেসে একটি বিবৃতিতে বলা হচ্ছে ২০১৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লাহোরে সাক্ষাত করেন নওয়াজ শরীফের সঙ্গে। ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মুম্বইয়ে সিরিজ বোমা হামলার প্রধান অভিযুক্ত দাউদ ইব্রাহিম। কিন্তু এই দাবি ভিত্তিহীন। এর স্বপক্ষে কোন প্রমাণ নেই। এমন বক্তব্য সম্পূর্ণই মিথ্যা। আজম খানের এ বক্তব্যের কারণে তার ওপর বিজেপি ক্ষুব্ধ হলেও বিরোধী দল কংগ্রেসও এমন বক্তব্যের মধ্যে কোন গুরুত্ব খুঁজে পাচ্ছে না। তারা বলছে, এমন অভিযোগ বিশ্বাসযোগ্য নয়। আজম খান অভিযোগ করেছেন, আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তান সফর করেছেন। তিনি সেখানে দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন। প্রধানমন্ত্রী কি তা অস্বীকার করবেন। আমি এর স্বপক্ষে প্রমাণ দেব। প্রধানমন্ত্রী রুদ্ধদ্বার বৈঠকে কার সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন? আজম খান অভিযোগ করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বাসভবনে ওই বৈঠকে নওয়াজ শরীফ ছাড়াও তার মা, স্ত্রী, মেয়েরা ও দাউদ ইব্রাহিম উপস্থিত ছিলেন। এমন অভিযোগের জবাবে মন্ত্রী আজম খানকে অবিলম্বে মন্ত্রিত্ব থেকে বরখাস্ত করতে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিজেপির নেতা সুধাংশু মিত্তাল। তিনি বলেন, অখিলেশ যদি রাজনীতি করতে চান তাহলে তার উচিত হবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি নষ্ট করার কারণে, জাতির জন্য লজ্জা বহনকারী এই মন্ত্রীকে অবিলম্বে বরখাস্ত করা। তার বক্তব্যে আমি ভীষণভাবে হতাশ। ওদিকে কংগ্রেস মুখপাত্র টম বাদাখান বলেন, দীর্ঘদিন গুরুত্বপূর্ণ পদে আছেন আজম খান। তার উচিত হবে না অলিক কোন বিবৃতি দেয়া। তিনি বলেন, অনেক মানুষের সঙ্গেই আমাদের মতপার্থক্য থাকতে পারে। তাই বলে যা-ই বলা হবে আমাকে তা-ই বিশ্বাস করতে হবে এমন কোন কথা নেই।

You Might Also Like