শ্বাসরোধে কিশোরকে হত্যা করল তিন বন্ধু

মারবেল খেলায় জিতে টাকা না পেয়ে নীলফামারীর জলঢাকায় সাহেব উদ্দিন ঘুটু (১৪) নামের এক কিশোরকে তার তিন বন্ধু শ্বাসরোধে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘুটু ওই এলাকার ঝালমুড়ি বিক্রেতা বাদশা মাহমুদের ছেলে।

সোমবার দুপুরে উপজেলার গোলনা কালিগঞ্জ গ্রাম থেকে ওই কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

জলঢাকা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মফিজ উদ্দিন শেখ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে তিন কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ, যাদের বয়স ১৩ থেকে ১৫ বছরের মধ্যে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ তারা ঘুটুকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

আটক কিশোরদের বরাত দিয়ে পরিদর্শক বলেন, রোববার সকালে মারবেল খেলায় হেরে গেলেও শর্ত অনুযায়ী ঘুটু টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানায়।

এর জেরে রাতে হাট থেকে ঝালমুড়ির বিক্রির ৪৮০ টাকা নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে তিন কিশোর ঘুটুকে সিগারেট খাওয়াবে বলে একটি ভুট্টাক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে তারা ঘুটুর পকেটে থাকা টাকা ছিনিয়ে নেয় এবং গলায় মাফলার পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে।

এ ঘটনাকে আত্মহত্যা সাজাতে এক বাঁশঝাড়ে তার লাশ ঝুলিয়ে রেখে তারা পালিয়ে যায় বলে জানান পরিদর্শক।

সোমবার সকালে বাঁশঝাড় থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নীলফামারী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় ঘটুর বাবা হত্যা মামলা করেছেন।

You Might Also Like