মার্কিন সংগীতশিল্পী বিয়ন্স নোলসকে হত্যার হুমকি

মার্কিন সংগীতশিল্পী বিয়ন্স নোলসের মা পুলিশে ফোন করে জানিয়েছেন, এক ব্যক্তি তাঁর মেয়ে বিয়ন্সকে এক পোস্টে হত্যার হুমকি দিয়েছেন। এ তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের মিরর ডটকম।

বিয়ন্সের মা ৫২ বছর বয়সী টিনা লসন পুলিশকে জানিয়েছেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে তাঁর অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা এক ছবির নিচে হত্যার হুমকি দিয়ে একটি মন্তব্য পোস্ট করেছেন এক বর্ণবাদী ব্যবহারকারী।

ওই ব্যক্তি বিয়ন্সের ছবির নিচে তাঁর মন্তব্যে লিখেছেন, ‘আমি তোমার মেয়েকে হত্যা করতে যাচ্ছি।’ মন্তব্যকারী আরও লিখেছেন, ‘যে ‘‘কারমেন’’ ছবিতে সে অভিনয় করেছিল, তা-ই ফিরে আসছে তাঁকে তাড়া করতে।’

পপ তারকা বিয়ন্স নোলস ২০০১ সালে ‘কারমেন’ ছবির মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। এ ছবির কাহিনিতে তাঁকে পেছন থেকে পর পর দুটি গুলি করে হত্যা করা হয়।

শুধু সংগীত তারকা হিসেবেই নন, ২০১৪ সালের বিশ্বের ১০০ জন প্রভাবশালী তারকার নামের তালিকা প্রকাশ করেছিল ফোর্বস ম্যাগাজিন। প্রথমবারের মতো এ তালিকায় ঠাঁই হয়েছিল মার্কিন গায়িকা ও অভিনেত্রী বিয়ন্স নোলসের। ১১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করে ২০১৪ সালের তালিকায় শীর্ষস্থান দখল করেছিলেন ৩২ বছর বয়সী এ পপসংগীত তারকা।

৩৪ বছর বয়সী সংগীত তারকা বিয়ন্স নোলস ২০০৯ সালে বড়পর্দায় সর্বশেষ অভিনয় করেছেন ‘অবসেসড’ ছবিতে। সামনে সংগীতপ্রধান চলচ্চিত্র ‘আ স্টার ইজ বর্ন’ ছবির রিমেকে অভিনয় করবেন তিনি। মার্কিন পপসংগীত তারকা কণ্ঠশিল্পী বিয়ন্স নোলস সংগীত নয়, গত এক বছর ধরেই তালিম নিচ্ছেন অভিনয়ের। চলচ্চিত্রে ভালো কোনো চরিত্রে অভিনয়ের জন্যই তাঁর এই প্রস্তুতি।

‘আ স্টার ইজ বর্ন’ ছবিটি প্রথম নির্মিত হয়েছিল ১৯৩৭ সালে। এরপর ১৯৫৪ ও ১৯৭৬ সালে আরও দুই বার পুনর্নির্মিত হয়। মিরর। টাইমস অব ইন্ডিয়া।

You Might Also Like