চীনে শিশু চুরি ঠেকাতে ইন্টারনেটের অভিনব ব্যবহার

চীনের শিশুদের চুরি হওয়া উদ্বেগজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় এখন সেখানকার মানুষরা ইন্টারনেটে তাদের খুঁজে পাওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে।
এরমধ্যে বেশ কয়েকটি শিশুকে খুঁজে পেয়েছেন তাদের বাবা-মা।
অভিনব উদ্যোগের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম উইয়েবোতে সবচেয়ে বড় প্রচারণা এখন – ‘বেবি কাম হোম’।
যেখানে অনুসারীর সংখ্যা রয়েছে তিন লক্ষ ৫০ হাজারের মত।
সেখানে বাবা-মায়েরা তাদের নিখোঁজ হয়ে যাওয়া সন্তানের ছবি দিয়ে বিস্তারিত ঠিকানা জানাচ্ছে নিজেদের।
একই ভাবে যারা কোন শিশু পেয়েছেন তাদের ছবি দিচ্ছেন ওয়েবসাইটটিতে।
সম্প্রতি তিন বছর বয়সী একটি শিশু অপহরণের ছবি ধরা পরে রাস্তার সিকিউরিটি ক্যামেরায়।
সে দৃশ্যের একটি স্থির চিত্র সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পরলে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। পরে পুলিশ শিশুটিকে খুঁজে পায়।
চীনে কেন শিশুদের চুরি করা হয়?
চীনে রয়েছে একটি বড় কালো বাজার যেখানে শিশুদের বেচা- কেনা করা হয়।
মূলত তাদের বিক্রি করা হয় দত্তক দেয়ার জন্য।
মেয়ে শিশুর মূল্য ধারণ করা হয় আট ডলারে।
আর ছেলে শিশুর দাম দ্বিগুণ। চীনে শিশু চুরির ঘটনা হরহামেশা শোনা যায়।
সঠিক হিসেব না থাকলেও ধারণা করা হয় ১০ হাজারের মত শিশু নিখোঁজ রয়েছে।-বিবিসি

You Might Also Like