‘দাউদ মার্চেন্টকে ভারতে ফেরত পাঠাবে বাংলাদেশ’

ভারতীয় সন্ত্রাসী দাউদ মার্চেন্টকে ফেরত পাঠানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। ভারত-বাংলাদেশ বন্দি বিনিময় চুক্তি মেনে ভারতের হাতে তাকে তুলে দেয়া হবে।

আজ সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এ কথা জানান।

এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ব্যাংক কর্মকর্তা রাব্বী এবং সিটি করপোরেশন কর্মকর্তা বিকাশের ওপর হামলাকারী পুলিশ সদস্যদের ছাড় দেয়া হবে না। বরখাস্ত হওয়া পুলিশের এসআই মাসুদ শিকদারের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে বলেও জানান তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ডিউটির সময় পুলিশ সদস্যদের অবশ্যই ড্রেসকোড মানতে হবে। ডিবি পুলিশকেও ডিউটিতে সংস্থার লোগো সংবলিত কোটি পরিধান করতে হবে। কয়েকটি চাঁদাবাজির ঘটনায় পুলিশ সদস্যদের সম্পৃক্তার অভিযোগ ওঠায় এ বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রী আরো জানান, ভারতীয় সন্ত্রাসী দাউদ মার্চেন্টকে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। ভারত-বাংলাদেশ বন্দি বিনিময় চুক্তি মেনে ভারতের হাতে তাকে তুলে দেয়া হবে। এজন্য বাংলাদেশের আদালতে দাউদ মার্চেন্টের বিরুদ্ধে আনা যাবতীয় মামলা প্রত্যাহারে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

গত ৯ ডিসেম্বর ঢাকার আদালতে দাউদের বিরুদ্ধে আনা অবৈধ প্রবেশের মামলা প্রত্যাহারের আবেদন করা হয়েছে। আগামী ৩১ জানুয়ারি এর শুনানি হবে বলে জানান তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দাউদ মার্চেন্টসহ অনেকেই বাংলাদেশের কারাগারে আটক রয়েছেন। যাদের সাজার মেয়াদ শেষ হয়েছে, তাদের ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে বন্দি প্রত্যর্পণ চুক্তির পর সম্প্রতি বিভিন্ন পর্যায়ের আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে জঙ্গি ও দাগি সন্ত্রাসীদের হস্তান্তর শুরু হয়। এ চুক্তির আওতায় অনুপ চেটিয়াকে ফেরত দেয়া হয়। পরে নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের মামলার অন্যতম আসামি নূর হোসেনকে ফেরত পায় বাংলাদেশ।

You Might Also Like