বিএনপি অবৈধ, জনগণ চাইলে নিষিদ্ধ হতে পারে : আ. লীগ

‘বিএনপি অবৈধ রাজনৈতিক দল। জিয়াউর রহমান অসাংবিধানিকভাবে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখলের পর সামরিক উর্দি পড়ে ক্যান্টনমেন্টে বসে বিএনপি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তাই জনগণ চাইলে বিএনপি নিষিদ্ধ হতে পারে। কারণ এদেশের সকল ক্ষমতার মালিক জনগণ। জনগণ যদি অবৈধ একটি দলকে অবৈধ হিসেবে দেখতে চায় বা ঘোষণা করতে চায় তাহলে তাই হবে।’ বুধবার বিকালে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, আমেরিকার রাষ্ট্র ব্যবস্থায় বিএনপিকে ইতিমধ্যেই সন্ত্রাসী দল হিসেবে তালিকাভুক্তি করার আহ্বান এসেছে। তাদের কাউন্সিলরদের মধ্য থেকেই বিএনপির সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের উপর বিচার-বিশ্লেষণ করেই তাদেরকে সন্ত্রাসী দল হিসেবে চিহ্নিত করার আবেদন উঠেছে। এই মুহূর্তে কাগজটা আমার কাছে নেই। তবে কেউ চাইলে আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) দিতে পারবো।

‘বিএনপি অবৈধ হলে আওয়ামী লীগও অবৈধ’ মর্মে মির্জা ফখরুলের বক্তব্যের সমালোচনা করে হানিফ বলেন, এর চেয়ে হাস্যকর উক্তি আর হতে পারে না। আওয়ামী লীগ ১৯৪৯ সালে কাউন্সিলে নির্বাচিত হওয়া দল। এই বাংলাদেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য দলটি প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। এটা যদি মির্জা ফখরুল সাহেব না জেনে থাকে তাহলে তাঁকে ইতিহাস পড়ে নেয়ার জন্য তাকে সহ বিএনপিকে নেতৃবৃন্দকে অনুরোধ জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ এদেশের গণমানুষের দল যা ১৯৭১ সালের বহু আগেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তাই এ দলকে অবৈধ বলার ধৃষ্টতা ভবিষ্যতে আর কোন বিএনপি নেতারা দেখাবেন না এটা আমরা প্রত্যাশা করি।

You Might Also Like