রামদেবের পণ্যে গো-মূত্র, মুসলিম সংস্থার বর্জনের ফতোয়া

ভারতে যোগগুরু নামে পরিচিত বাবা রামদেবের সংস্থায় তৈরি পণ্যে গো-মূত্র থাকার অভিযোগে তা ব্যবহার করা হারাম বলে ফতোয়া দিয়েছে মুসলিমদের একটি সংগঠন। এ নিয়ে তীব্র বিতর্ক সৃষ্টি হওয়ায় বুধবার রামদেবের সংস্থার পক্ষ থেকে অবশেষে মেনে নেয়া হয়েছে ৫টি পণ্যে তারা গো-মূত্র ব্যবহার করে থাকে। সেসব পণ্যের গায়ে তা লেখাও থাকে বলে রামদেবের পতঞ্জলি সংস্থার পক্ষ থেকে আচার্য বালকৃষ্ণ জানিয়েছেন।

রামদেবের সহযোগী আচার্য বালকৃষ্ণ জানান, ‘আমরা ৮০০-এর বেশি পণ্য তৈরি করে থাকি। তার মধ্যে মাত্র ৫টি পণ্যে গোরুর প্রস্রাব মেশানো হয়। পতঞ্জলি কোনো কাজ গোপন করে করে না। যেসব পণ্যে গো-মূত্র মেশানো হয় তার গায়ে তা স্পষ্ট করে লেখাও থাকে। এজন্য সঠিক তথ্য জানার পরেই ফতোয়া দেয়া উচিত।’

মঙ্গলবার ‘তামিলনাড়ু তৌহিদ জামাত’ নামে এক মুসলিম সংগঠনের পক্ষ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে মুসলমানদের পতঞ্জলির পণ্য বয়কট করার ডাক দেয়া হয়। তাদের দাবি, পতঞ্জলি উৎপাদিত পণ্যে গো-মূত্র ব্যবহার করা হয় যেটি মুসলিমদের জন্য হারাম। তারা প্রসাধনী, ওষুধ এবং খাদ্য পণ্য বয়কট করার ডাক দেয়। এরপর এ নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়।

প্রসঙ্গত, রামদেবের পতঞ্জলি সংস্থার পক্ষ থেকে সাবান, শ্যাম্পু, টুথপেস্ট, ত্বকের ক্রিম, বিস্কুট, মাখন, জুস, মধু, ময়দা, রান্নার তেল, মশলা, চিনি, নুডুলস সহ ৮০০ ধরণের বেশি বিভিন্ন পণ্য তৈরি করে তা বাজারজাত করা হয়।

You Might Also Like