আইএস জঙ্গিরা ব্যবহার করছে ‘খিলাফাহবুক’

জঙ্গি সংগঠন আইএস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টুইটার আর ইউ টিউবের আদলে নিজেদের নতুন সদস্য নিয়োগে নিজেদের জন্য ‘খিলাফাহবুক’ নামের একটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম চালু করেছে।

এখন পর্যন্ত খিলাফাহবুকে এক লক্ষ নতুন অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে। তারা নিজেদের মধ্যে জঙ্গি কার্যক্রম ও সামাজিক নেটওয়ার্কিং গড়ে তোলা এবং নতুন জঙ্গিদের এবং উদ্যোক্তাদের কাছে টানতেই এই খিলাফাহবুক ব্যবহার করছে।

খিলাফাহবুকের ডোমেইন রেজিস্ট্রার্ট করা হয়েছে মধ্য প্রাচ্য থেকে। এটা নিয়ন্ত্রণও করা হয় মধ্যপ্রাচ্য থেকে। ইসলামিক স্টেট আইটি চিফ অব অ্যাডমিন আবু মুসাব এই খিলাফাহবুকের প্রতিষ্ঠাতা। ফেসবুকের মতো ডিজাইনে খিলাফাহবুক তৈরি করা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বাদেও আইএস এবার নিজেদের প্রচার প্রচারণা বৃদ্ধির জন্য অ্যান্ড্রুয়েড অ্যাপস ছেড়েছে। ঘোস্ট সিকিউরিটি গ্রুপ ‘আমাক নিউজ’ নামের এই অ্যাপ তৈরি করেছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া।

অ্যাপটি আইএসের ‘প্রজ্ঞাপন’-এ ‘স্ট্রিমলাইন অ্যাকসেস’ দেওয়া যাবে। অ্যাপটি চালু করা হলে, এটি একটি স্ক্রলিং নিউজ ফিড আর ভিডিও চালু করার আইকন দেখায়। সেই সঙ্গে ব্যবহারকারীরা যাতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নতুন পোস্ট পান সেই ব্যবস্থাও রাখা আছে অ্যাপটিতে। জঙ্গি কার্যক্রমকে আরো সমৃদ্ধ করতে তারা এই অ্যাপস ব্যবহার করছে।

তবে এই অ্যাপটি সবার জন্য উন্মুক্ত নয়, গুগল প্লে স্টোরের মতো মার্কেটপ্লেসে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যায় না। তবে, টেলিগ্রাম অ্যাপ আর অন্যান্য এনক্রিপটেড যোগাযোগ উপায়ে আইএস সদস্যদের মধ্যে অ্যাপটি ডাউনলোডের লিংক শেয়ার করা হয়েছে

টেলিগ্রাম হচ্ছে এমন একটি অ্যাপ যা প্রায় সবধরনের ডিভাইসে চালানো যায় আর যথেষ্ট নিরাপত্তা মেনে ব্যবহারকারীদের মেসেজ আদান প্রদান করতে দেয়।

You Might Also Like