কুষ্টিয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী লাইলী খাতুনকে হত্যার দায়ে স্বামী রোকন মণ্ডলকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক রেজা মো. আলমগীর হাসান আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের পিপি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী মামলার বিবরণে জানান, ২০১১ সালের ২৬ আগস্ট রাতে দৌলতপুর উপজেলার নাজিরপুর গ্রামের হুলি মণ্ডলের ছেলে ভ্যানচালক রোকন ম-ল জুয়ায় টাকা খুঁইয়ে বাড়ি এসে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী লাইলী খাতুনের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে রাত ৯টার পর রোকন স্ত্রী লাইলী খাতুনকে শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ বাড়ির পাশের ড্রেনে ফেলে দেয়। দুদিন পরে ড্রেন থেকে লাইলীর গলিত লাশ উদ্ধার হয়।

নিহতের বাবা লাল চাঁদের দায়ের করা মামলায় পুলিশ রোকনকে গ্রেফতার করে। পরে আদালতে ১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দিতে রোকন স্ত্রী হত্যার কথা স্বীকার করে।

মামলার সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে বিচারক সোমবার রোকন মণ্ডলকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যদণ্ড কার্যকর করার আদেশ দেন।

You Might Also Like