আমির খান নিরাপরাধ : পরিচালক হিরানি

ভারতে চলমান ‘ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা’ নিয়ে মুখ খুলে রীতিমতো তোপের মুখে বলিউড অভিনেতা আমির খান। নানাভাবে বিদ্রুপের শিকার হচ্ছেন এ অভিনেতা। এমনকি বলিউডের অভিনয় শিল্পীরাও বিষয়টি নিয়ে বিভক্ত। এমন সময়ে অনেককেই পাশে পেয়েছেন এ তারকা অভিনেতা। তাদের মধ্যে রয়েছেন পরিচালক রাজ কুমার হিরানিও। এ পরিচালক জানিয়েছেন, আমির খান নিরাপরাধ।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে পরিচালক হিরানি বলেন, ‘আপনি যদি তার কথা শুনে থাকেন তাহলে বুঝবেন তিনি পরিষ্কার করেই বলেছেন, ‘আমার স্ত্রী এক সময় আমাকে বলেছিল যেটি শুনে আমি খুব মানসিক দ্বিধায় পড়েছিলাম।’ আমার কাছে এটি কোনো দোষের উত্তর নয়। আমির খান নিরাপরাধ।’

এ সময় অনুষ্ঠানে হিরানির সঙ্গে ছিলেন বলিউডের প্রবীণ লেখক জাবেদ আখতার।

হিরানি আরও বলেন, ‘তিনি সম্ভবত তার পারিবারিক বিষয় সবার সম্মুখে প্রকাশ করেছেন। এবং আমার মতে, বিষয়টি উপেক্ষা করার মতোও নয়। মানুষ যেভাবে তাকে আক্রমন করছে একদিক থেকে সেটিও অসহিষ্ণুতা।

পিকে খ্যাত এ নির্মাতা জানান, বিষয়গুলোতে মানুষকে আরও ধৈর্যশীল এবং সতর্ক হওয়া উচিত।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি এ বিষয়গুলোর ইতিবাচক দিক নিয়ে আলোচনা করা উচিত। আমাদের সকলের বিষয়গুলো নিয়ে সতর্ক থাকা দরকার।’

সম্প্রতি রামনাথ গোয়েঙ্কা এক্সেলেন্স ইন জার্নালিজম পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন আমির। সেখানে তিনি বলেন, ‘গত ৭-৮ মাস ধরে ভারতজুড়ে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা চলছে। সমাজের মানুষের মধ্যে ‘নিরাপত্তাহীনতা’ এবং ‘ভয়’ কাজ করছে।’

এ ছাড়া ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার কারণে আমির ভারত ছাড়ারও চিন্তা করেছিলেন বলে জানান। তিনি বলেন, ‘কিরণ এবং আমি প্রথম থেকেই ভারতে বসবাস করছি। কিন্তু এই প্রথম সে আমাকে দেশ ছাড়ার কথা বলেছে। বাড়িতে এই বিষয়টি নিয়ে আমি যখন কিরণের সঙ্গে কথা বলি; সে আমাকে বলেছিল, তাহলে কী আমাদের এখন দেশ ছেড়ে চলে যাওয়া উচিত?’

এরপর থেকেই আমির রাজনীতিবিদ এবং বিভিন্ন সংগঠনের তোপের মুখে পড়েন। এমনকি বলিউডের অনেক অভিনয় শিল্পীও আমিরকে নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন।

হিরানি বলেন, ‘আপনি যদি আমিরের সাক্ষাৎকারটি ভালো করে বিশ্লেষণ করেন তাহলে দেখবেন তিনি বলেছেন, ‘এটি আমি মনে করি’। তাকে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ করা হয়েছিল। তিনি সেখানে নানা বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন। এর মধ্যে একটি ছিল ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা। এবং এই বিষয়টি নিয়েই কথা হচ্ছে বেশি।’

আমিরের ধর্মীয় বিশ্বাসও বিষয়টির ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। এ বিষয়ে হিরানি বলেন, ‘এটিই বিষয়টির মূল কারণ যে আমির একজন মুসলিম। কিন্তু এটি আমাদের মনে কখনই আসে না। আমরা প্রতি বছর আমিরের বাড়িতে দীপাবলি পালন করি। আজ আমি জাবেদ সাহেবের সঙ্গে বসে আছি। আমার মনে কখনই এমনটি আসেনি যে একজন হিন্দু এবং মুসলমান পাশাপাশি বসে আছি। এটিই একমাত্র কারণ। এ কারণেই বিষয়টি ছড়িয়েছে। আমার মতে অবশ্যই কোনো বিভক্তি তৈরি হয়েছে।’

You Might Also Like